এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে কি আলোচনা হয়েছিল, ‘ফাঁস’ করলেন স্বয়ং সৌরভ গাঙ্গুলি

অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে কি আলোচনা হয়েছিল, ‘ফাঁস’ করলেন স্বয়ং সৌরভ গাঙ্গুলি

বাংলার মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলিকে ঘিরে বাঙালি আবার গর্বের শিখরে পৌঁছালো। এবার বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। 23 শে অক্টোবর এর বার্ষিক সভাতেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেবেন ক্রিকেটীয় মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলী। সৌরভ গাঙ্গুলী যদি এবার বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হন, তাহলে ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে তিনি দ্বিতীয় অধিনায়ক যিনি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব হাতে পাবেন। এর আগে ভারতীয় অধিনায়ক ভিজির মহারাজ কুমার বিসিসিআইয়ের পূর্ণ সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন।

ক্রিকেটের অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব নেওয়ার খবরে তাঁর বাড়িতে অসংখ্য শুভেচ্ছা বার্তা আসছে। যার মধ্যে বিজেপির হেভিওয়েট নেতারাও তাঁকে শুভেচ্ছা বার্তা জানাচ্ছেন। তবে সৌরভ গাঙ্গুলী বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হওয়ার ব্যাপারে রাজনৈতিক যোগসূত্র যে একেবারেই নেই, তা মানা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন রাজনৈতিক মহল।

পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক মহলে বর্তমানে সৌরভ গাঙ্গুলী বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হওয়া নিয়ে একটি বিতর্ক উঁকি মারছে। রাজনৈতিক মহলের দাবি, 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলা থেকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদে আসীন হলেন। অমিত শাহ 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে সৌরভ গাঙ্গুলী বিজেপির হয়ে প্রচারে নামতে পারেন পশ্চিমবাংলায়।

যদিও এই জল্পনায় জল ঢেলেছেন স্বয়ং মহারাজ। মঙ্গলবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ গাঙ্গুলী পরিষ্কার করে বলে দিয়েছেন, তিনি রাজনীতিতে কোনমতেই যোগ দিচ্ছেন না। তবে অমিত শাহের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সূত্রের খবর, বিসিসিআই এর পক্ষ থেকে সহ সভাপতির পদ নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল সৌরভ গাঙ্গুলীকে। এবং সভাপতি হতেন ব্রিজেশ পটেল। কিন্তু সহ-সভাপতির পদ খারিজ করে দেন সৌরভ গাঙ্গুলী। সৌরভ গাঙ্গুলীর মনোভাব অমিত শাহকে জানায় অনুরাগ ঠাকুর। অন্যদিকে, অমিত শাহ পাখির চোখ করেছেন বাংলাকে। তাই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে সভাপতি হিসেবে দেখতে চান বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়ে দেন। অনুরাগ ঠাকুর তখন বাকি সদস্যদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ইচ্ছার কথা জানিয়ে দেন। আর এর পরেই অমিত শাহের সিদ্ধান্তের পেছনের রাজনীতি নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

অনেকেই মনে করছেন 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে সর্বভারতীয় সভাপতি বাংলার কাজে লাগাতে চলেছেন। তবে অমিত শাহের রাজনৈতিক কূটনীতির দ্বারা বিজেপি যে কতটা সাফল্য পেয়েছে তা সময়ই বলে দিচ্ছে। এদিকে, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যে তিনি কোনমতেই রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রবিবার মুম্বাইয়ে ট্রাইডেন্ট হোটেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে বৈঠক করেন প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। আর রবিবারই মধ্যরাতে সৌরভ গাঙ্গুলীর বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত শিলমোহর পড়ে। সাংবাদিক বৈঠকে অবশ্য সৌরভ গাঙ্গুলী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়টি অস্বীকার করেননি। তিনি বলেন, “অমিত সাহার সঙ্গে দেখা হয়েছে। কিন্তু রাজনীতিতে আসছি না। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গেও বৈঠকের সময় এমন কথা হয়েছিল।

বৈঠকে রাজনীতি নিয়ে কোনো কথা হয়নি।” তিনি আরো বলেন “অমিত শাহের সঙ্গে প্রথম বার দেখা হয়েছে। বিসিসিআই নিয়ে কোন প্রশ্ন করিনি। আমি পদ পাব কিনা তাও জানতে চাইনি। অথবা তুমি এটা করলে পদ পাবে, এমন কোনও কথা হয়নি।” এর পরেই সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন তাহলে কি অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ ক্রিকেটবোর্ডকে নিয়ন্ত্রণ করবেন? উত্তরে সৌরভ গাঙ্গুলী জানান জয় শাহ তো রাজনীতিতে নেই।

এই প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। তিনি জানিয়েছেন, “সৌরভের সঙ্গে কোনো চুক্তি হয়নি। সৌরভ আসতেই পারে আমার সঙ্গে দেখা করতে। আমরা কখনোই তাঁকে দলে নিতে চাইনি। আবার সৌরভ কখনো যোগ দিতে না চাও আর কথাও বলেনি বিজেপিতে যোগ দিতে না চাওয়ার কথাও বলেনি। বিজেপিতে যোগ দিতে চাইলে সৌরভকে স্বাগত। দেশের প্রত্যেক নাগরিককে আমি তাই বলে থাকি। এটাই আমার কাজ।”

আগামী 23 অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদ গ্রহণ করবেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ভারতীয় ক্রিকেটের পারফরম্যান্স থেকে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটারদের উন্নতিই যে তাঁর লক্ষ্য, তা জানিয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। তবে তার সাথে তিনি এও জানান, বড় টুর্ণামেন্টে ভারতীয় দলের পারফরমেন্সের এবার চুলচেরা বিচার হবে।

সম্পূর্ণ ঘটনাকে নজর রেখে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, প্রাক্তন অধিনায়ক কে বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট পদে আসীন করার সাথে সাথে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি তাঁর তুরুপের তাসটি খেলে নিলেন বাংলার রাজনীতির স্বার্থে। পরবর্তী দিনে এই তাসটিকেই কাজে লাগাবে সর্বভারতীয় সভাপতি বাংলার রাজনীতির ক্ষেত্রে।

তবে এই দাবিকে সম্পূর্ণ নস্যাৎ করে সৌরভ গাঙ্গুলীর তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, রাজ্য রাজনীতিতে যোগদান করার কোনরকম ইচ্ছা তাঁর নেই। তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, এই মুহূর্তে হয়তো প্রাক্তন অধিনায়ক কোনো সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন না। তবে ভবিষ্যতে কি হবে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। সমগ্র পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে বাংলার রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!