এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > অমিত শাহ আসার আগেই বড় ধাক্কা খেলো বঙ্গ বিজেপি, তৃণমূলে ফিরলো ঘরের ছেলেরা

অমিত শাহ আসার আগেই বড় ধাক্কা খেলো বঙ্গ বিজেপি, তৃণমূলে ফিরলো ঘরের ছেলেরা

লোকসভা ভোটের পরেই তৃণমূলকে নিয়ে রাজ্যে “গেলো গেলো”রব উঠেছিল। রাজ্যে ১৮ টি আসন পাওয়ার পরে বিজেপির যে ঝড় উঠেছিল তাতে নড়বড়ে হয়ে গিয়েছিলো তৃণমূলের অন্দর। লোকসভা ভোটের পর ঝড়ের গতিতে তৃণমূলের ঘর ভাঙতে শুরু করেছিল বিজেপি। যদিও সে ঝড় এখনো অব্যাহত। তবুও ঝড়ের দাপট কিছুটা হলেও কমেছে। ঘরে ফিরছেন ঘরের ছেলেরা।

রাজ্যে সারাদুৎসব শুরু হয়ে গেছে আর এর মধ্যেই রাত পোহালেই রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ। আর তার আগেই বিজেপির বাংলার শীর্ষ নেত্রীয়দের জন্য বড়সড় প্রশ্ন তুলে ফের বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন ১০ জন পঞ্চায়েত সদস্য এবং ২ জন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য। ঘটনাটি কোচবিহার ১ নম্বর ব্লকের জিরানপুর পঞ্চায়েতের।এদিন জনপ্রতিনিধিদের হাতে পতাকা তুলে দেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা তপন বর্মন এবং আশরাফুল আলি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

লোকসভা ভোট যে যে জায়গায় ঝড় তুলেছিল বিজেপি তার মধ্যে এই কোচবিহার ছিল অন্যতম। তৃণমূলের হাত থেকে এই আসনটিইও ছিনিয়ে নিয়েছিল বিজেপি। যার জেরে তৃণমূলের সংগঠনে ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছিলো। কিন্তু হটাৎ কি এমন হলো যে ফের তৃণমূলে ফিরছেন দলের নেতা কর্মীরা। আজ ফের এই প্রশ্নই উঠে গেলো।

বিজেপির তরফ থেকে দাবি ভয় দেখিয়ে জোর করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি বিজেপি ভুল বুঝিয়ে নিয়ে গিয়েছিলো মানুষ এখন তাদের ভুল বুঝতে পেরেছেন।

কিন্তু সে যাই হোক রাজনৈতিকমহলের প্রশ্ন যদি বিজেপির দাবি সত্যিই হয় যে তৃণমূল ভয় দেখিয়ে ফেরত নিয়ে যাচ্ছে তবে দলের নেতা নেত্রীরা কি করছেন? কেন অবস্থার সামাল দিতে পারছেন না ? এমন ভাবে সংগঠন শক্তিশালী হবার আগেই যদি ভেঙে পরে তবে ভবিষ্যতে বিজেপির জন্য বড়সড় অঘটন ঘটাটা কোনো অসম্ভব নয়। সংশ্লিষ্টমহলের মতে, অবিলম্বে বিজেপি নেতা নেত্রীদের নিজেদের সংগঠনের দিকে নজর দেওয়া উচিত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!