এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার অমিত শাহের নাম করে পুলিশ ও তৃণমূল নেতাদের ভয় দেখানোর অভিযোগ উঠল সায়ন্তন বসুর নামে

এবার অমিত শাহের নাম করে পুলিশ ও তৃণমূল নেতাদের ভয় দেখানোর অভিযোগ উঠল সায়ন্তন বসুর নামে

লোকসভা ভোটের প্রচারে বিজেপি বনাম তৃণমূলের রাজনৈতিক লড়াইয়ে চরম আকার ধারণ করেছিল। রাজ্যের একাধিক পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনের কাছে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ জানানো হলে পুলিশ প্রশাসনের ক্ষেত্রে নানা রদবদল ঘটিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। আর লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর বিজেপি প্রবল সাফল্য এবং রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের ভরাডুবির মত ঘটনা ঘটায় তোলপাড় হয়ে যায় রাজ্য রাজনীতি।

এতদিন পুলিশ প্রশাসনকে নিয়ে তৃণমূল রাজনীতির নামে বিরোধীদের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে বলে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলেও এদিন পাল্টা সেই রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিতে দেখা গেল বসিরহাটের পরাজিত বিজেপি প্রার্থী তথা রাজ্য বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, শুক্রবার রাজ্য বিজেপির অফিসে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই বিজেপি নেতা বলেন, “ভোটের ফল বেরোনোর পর বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ কমিশনার বদল করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে যেখানে বিজেপি জিতেছে, সেখানকার পুলিশ সুপারদের ডেকে এলাকা ঠান্ডা করতে হবে বলে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। মনে রাখবেন কেন্দ্রে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় আছে। ভুলে যাবেন না, দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম অমিত শাহ। তাই পুলিশ দিয়ে বিজেপিকে চমকানোর রাস্তায় আর হাঁটা যাবে না।”

এদিকে অমিত শাহর নাম করে রাজ্যের শাসক দলকে হুঁশিয়ারি দেওয়াই নয়, জেলায় জেলায় তৃণমূলের দ্বারা বিজেপি নেতা, কর্মীরা অত্যাচারিত হচ্ছে বলেও সরব হন সায়ন্তন বসু। তিনি বলেন, “জেলায় জেলায় পুলিশ তৃণমূলের গুন্ডাদের নিয়ে বিজেপি কর্মীদের উপর অত্যাচার করছে। এর প্রতিবাদে আগামী সপ্তাহে কলকাতায় বড়সড় আন্দোলন সংঘটিত হবে।” কিন্তু কবে এই আন্দোলন হবে তার দিনক্ষণ এখনও ঠিক হয়নি বলে জানিয়ে দেন এই বিজেপি নেতা।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজয় মিছিলের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও গতকাল রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বিজেপির বিজয় মিছিল বের হয়েছিল। আর সেই প্রসঙ্গ টেনে এনেই পুলিশ আর তৃণমূলের সাথে নেই বলে জানিয়ে দেন সায়ন্তন বসু।

অন্যদিকে লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর বিধানসভা নির্বাচনে দলের রণকৌশল ঠিক করতে প্রশান্ত কিশোরের উপর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দায়িত্ব দিলে এদিন সেই প্রসঙ্গেও রাজ্যের শাসক দলকে খোঁচা দেন হেভিওয়েট বিজেপি নেতা। তিনি বলেন, “দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর ভরসা হারিয়ে ফেলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই বিহার থেকে ভাড়া করে তাকে লোক আনতে হচ্ছে।” সব মিলিয়ে এবার বিভিন্ন ইস্যুতে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হলেন বিজেপির সায়ন্তন বসু।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!