এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ঘাটাল ও কেশিয়ারিতে অমিত শাহের সভায় লোক নেই, তৃণমূলের সন্ত্রাস ও মাঠে ধানকাটাকে দায়ী করছে বিজেপি

ঘাটাল ও কেশিয়ারিতে অমিত শাহের সভায় লোক নেই, তৃণমূলের সন্ত্রাস ও মাঠে ধানকাটাকে দায়ী করছে বিজেপি

কার জনসভায় সব থেকে বেশি ভিড় হয় তা নিয়ে যখন জোর টেক্কা চলছে তৃণমূলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিজেপির নরেন্দ্র মোদির মধ্যে, ঠিক তখনই এবার বাংলায় কার্যত ফাঁকা মাঠেই সভা করতে দেখা গেল বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের সমর্থনে এদিন ঘাটালের বিদ্যাসাগর স্কুলের খেলার মাঠে একটি সভায় উপস্থিত হন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে বিজেপির এই হেভিওয়েট নেতাদের সভায় তেমনভাবে জনসমাগম না হওয়ায় কিছুটা হলেও চিন্তার ছাপ দেখা গিয়েছিল বিজেপি নেতাদের কপালে। এদিকে সভাস্থলে ঠিকমত লোক না হওয়ায় কার্যত চাপের মুখে পড়ে ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে হয় অমিত শাহকে। বাধ্য হয়ে তিনি বলেন, “আপনারা দয়া করে বসুন। আমি 15 থেকে 20 মিনিটের বেশি সময় নেব না।”

কিন্তু দলের সর্বোচ্চ সেনাপতির সভায় লোক হল না কেন? তাহলে কিভাবে তারা লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় পরিবর্তন আনবেন? এদিন এই প্রসঙ্গে ঘাটাল লোকসভা সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতি অন্তরা ভট্টাচার্য বলেন, “খুবই গরম। মাঠে ধান কাটা হচ্ছে, তবুও ভরদুপুরে আমরা পাঁচ হাজারের বেশি লোক জোগাড় করেছি। এই গরমে এটাই অনেক।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিকে ঘাটালের পাশাপাশি এদিন অমিত শাহর কেশিয়াড়ি জনসভাতেও সভাস্থল ফাঁকাই ছিল। মাঠজুড়ে শামিয়ানা টাঙানো হলেও বেশিরভাগ মাঠ জুড়েই সাধারণ মানুষের উপস্থিতি খুব একটা বেশি পরিমাণে লক্ষ্য করা যায়নি। বাস এবং ছোট গাড়ি করে অনেক কর্মী সমর্থকদের আনা হলেও প্রবল রোদের জন্য অনেকেই মাঠে প্রবেশ করেননি বলেই জানা গেছে। তবে মাঠের বাইরে থাকা লোকেদের সভাস্থলের সামনে নিয়ে আসতেও মাঠ ভরাতে চেয়ে মঞ্চ থেকে নানা বক্তব্য দিতে দেখা যায় দলীয় নেতাদের।

অনেকে বলেন, “যারা মাঠের ধারে দাঁড়িয়ে রয়েছেন, তারা মাঠে চলে আসুন। অমিতজি দিনের পর দিন পরিশ্রম করে রোদে সভা করছেন, তৃণমূলকে হটাতে হলে ভয় করলে হবে না।” কিন্তু দলীয় নেতাদের এই বক্তব্যেও তেমনভাবে কোনো কাজ হয়নি। কিছু কর্মী জয় শ্রীরাম বলে মূলমঞ্চের সামনে চলে আসলেও সেইভাবে মাঠ ভরতে দেখা যায়নি। তবে অমিত শাহর এই জনসভায় লোক না হওয়ার পেছনে তৃণমূলের সন্ত্রাস রয়েছে বলেই দাবি করতে শুরু করেছে গেরুয়া শিবির।

এদিন এই প্রসঙ্গে ঘাটাল লোকসভা সাংগঠনিক জেলার এক কর্মকর্তা বলেন, “আমাদের কিছু করার নেই। আমরা বারবারই বলেছিলাম যে তৃণমূলের হুমকি রয়েছে। সেই সঙ্গে মাঠে চাষের কাজ চলছে। ভর দুপুরে সভা হলে লোক আনতে পারব না। কিন্তু আমাদের কথা শোনাই হল না।” সব মিলিয়ে ঘাটাল এবং কেশিয়াড়িতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ জনসভা করলেও সেখানে মাঠ না ভরায় শাসকদলের সন্ত্রাস এবং ধান কাটাকেই দায়ী করছে গেরুয়া শিবির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!