এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সাংগঠনিক পরিবর্তন থেকে কার্যকর্তা বৈঠক সহ একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়ে বঙ্গ-সফরে অমিত শাহ

সাংগঠনিক পরিবর্তন থেকে কার্যকর্তা বৈঠক সহ একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়ে বঙ্গ-সফরে অমিত শাহ

বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণা থেকেই বঙ্গ-বিজেপি নেতৃত্ত্ব বারবার কেন্দ্রীয়-নেতৃত্ত্বকে জানিয়েছিল শাসকদলের ‘সন্ত্রাসের’ কথা। কিন্তু কেন্দ্রীয়-নেতৃত্ত্ব দেখতে চেয়েছিল প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও জনসমর্থন টানার জন্য কতটা তৈরী বঙ্গ-ব্রিগেড। আর পঞ্চায়েতের ফল বেরোতেই, জলের মত স্পষ্ট শাসকদলের থেকে অনেক পিছিয়ে থাকলেও এই রাজ্যে এখন প্রধান বিরোধী দলের নাম বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের জন্য মানুষের মনে একটা জায়গা তৈরি হয়েছে আর তাই লোকসভা নির্বাচনে বঙ্গভূমিতে পদ্ম-শিবিরের ফলাফল আশাতীত হতে পারে। আর তাই দেরি করতে রাজি নন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এখন থেকেই নিখুঁত অঙ্ক কষে বাংলায় গেরুয়া-কেতন ওড়াতে মনোনিবেশ করতে চান তিনি। আর সেই লক্ষ্যে আগামী মাসেই একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়ে বাংলায় আসছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত এপ্রিল মাসেই বঙ্গসফরে আসার কথা ছিল অমিত শহর। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি কলকাতায় নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামেও দলীয় কার্যকর্তাদের সাথে তাঁর বৈঠক করার কথা ছিল। কিন্তু তারমাঝেই বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণা হয়ে যায়, অন্যদিকে অমিত শাহ নিজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে। কিন্তু, এবার আর তিনি দেরি করতে চাইছেন না ‘সম্ভাবনাময়’ বঙ্গভূমির হাল-হকিকত নিজের চোখে দেখে যেতে। বিজেপি সূত্রের খবর আগামী জুন মাসে রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ। আর তাঁর সেই বঙ্গসফর ভোরে থাকবে ঠাসা কর্মসূচিতে। প্রথমেই, তিনি বৈঠকে বসবেন সাংগঠনিক পরিবর্তন নিয়ে। রাজ্য সভাপিত থেকে শুরু করে একদম নিচুতলা পর্যন্ত কোন পদে কোথায় কি পরিবর্তন দরকার তা পুঙ্খানুপুঙ্খ পর্যালোচনা করতে চান তিনি বলে জানা যাচ্ছে। এছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে তিনি সভা করবেন, বিশেষ করে পঞ্চায়েতে ভালো ফল করা পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া ও উত্তরবঙ্গ গুরুত্ত্ব পাচ্ছে।

বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে, ২০১৯-এ রাজনৈতিক সমীকরণে কয়েকটি রাজ্যে ২০১৪ এর মতো ফল নাও হতে পারে, আর তা পুষিয়ে নেওয়ার জন্য তিনটি রাজ্যকে বেছে নিতে চলেছে গেরুয়া শিবির – বাংলা, ওড়িশা ও তেলেঙ্গানা। এরমধ্যে বাংলা একদম প্রথম স্থানে আছে দুটি কারণে – প্রথমত, পঞ্চায়েতেই প্রমান হয়ে গেছে বাংলায় পদ্ম ফোটার মত অনুকূল পরিবেশ তৈরী। দ্বিতীয়ত, ফেডারেল ফ্রন্ট বা কর্নাটকে জেডিএস-কংগ্রেস জোট করে বিজেপির মুখের গ্রাস কেড়ে নেওয়া – সবেতেই নেতৃত্ত্ব দিচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাই তাঁকে বাংলার মাটিতেই তাঁর ‘হোম গ্রাউন্ডে’ কড়া টক্কর দিয়ে দেখিয়ে দিতে চায় গেরুয়া শিবির। গেরুয়া শিবির সূত্রে আরো জানা যাচ্ছে, এই বঙ্গসফরেই কলকাতায় বুদ্ধিজীবীদের সঙ্গে একটি ‘ঘরোয়া’ আলোচনা সারতে চান অমিত শাহ – তার জন্যও প্রস্তুতি তুঙ্গে। তবে জুন মাসের কোন তারিখে অমিত শাহ কলকাতায় পা রাখছেন তা এখনো কিছু জানা যায় নি।

আপনার মতামত জানান -
Top