এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েই কি বদলা নিলেন অমিত শাহ, জল্পনা বিজেপির-কংগ্রেসের অন্দরে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েই কি বদলা নিলেন অমিত শাহ, জল্পনা বিজেপির-কংগ্রেসের অন্দরে

দিল্লির অশোক রোডের 9 নম্বর বাড়িতে থাকতেন দেশের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী তথা প্রবীণ বিজেপি নেতা অরুণ জেটলি। আর অরুণ জেটলির 9 নম্বর বাংলোটির পাশের 11 নম্বর টিই সেই সময় ছিল বিজেপির সদর দপ্তর। সেই সময় অরুণ জেটলি ছিলেন রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা। সেইখানে চুপচাপ বসে থাকতে দেখা যেত এক আগন্তুককে। তিনি আর কেউ নন, তিনি দেশের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

জানা যায়, তখন অমিত শাহ সোহরাবুদ্দিন সংঘর্ষ মামলায় রাজ্য ছাড়া হওয়ায় গুজরাটে প্রবেশ করতে পারছিলেন না। আর সেই অমিত শাহ বর্তমানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ায় এবং দেশের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদাম্বরম গ্রেফতার হওয়ায় সেই 2010 সালের ঘটনা মনে পড়ে যাচ্ছে অনেকেরই।

জানা যায়, সেই সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন পি চিদাম্বরম। আর আজ ভাগ্যের বলে অমিত শাহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সেই সময় ঠিক যেভাবে অমিত শাহ সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন, আজ পি চিদাম্বরম সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে গ্রেপ্তার হওয়ায় ঠিক একইভাবে তিনিও সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন। একাংশের প্রশ্ন, তাহলে কি নিজের অতীতের কথা স্মরণ করে পি চিদাম্বরমের প্রতি বদলা নিলেন অমিত শাহ!

এদিন এই প্রসঙ্গে সলমন খুরশিদ বলেন, “এই ব্যাপারে আমি কিছু বলব না। কিন্তু চিদম্বরমের ভাবমূর্তি বিলকুল সাফ।” তবে কংগ্রেস শিবিরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে যে, আজ যদি অরুণ জেটলি সুস্থ থাকতেন, তাহলে হয়তোবা সিবিআইয়ের এমন অপব্যবহার হত না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কেননা রাজনৈতিকভাবে যে বিরোধিতায় থাক না কেন, বিরোধীদের সঙ্গে অত্যন্ত ভালো সম্পর্ক ছিল অরুণ জেটলির। ফলে তিনি এইভাবে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কাজটি করতেন না বলে দাবি কংগ্রেসের। এদিকে রাজীব গান্ধীর 75 তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সোনিয়া গান্ধী এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেওয়ার সময় এই ব্যাপারে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে যে প্রবল পরিমাণে আক্রমণ শানাবেন, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক মহলে।

এদিকে পি চিদাম্বরমকে সিবিআই দপ্তরে নিয়ে যাওয়ার পর থেকেই বিজেপি সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকসভা নির্বাচনের আগে নরেন্দ্র মোদির “আমিও চৌকিদার” বক্তব্যের অংশ ছড়িয়ে দিতে শুরু করেছে। তবে পি চিদাম্বরমের গ্রেপ্তারি নিয়ে বিজেপির দাবি, আইন আইনের পথেই চলছে। কোনো রাজনীতির প্রশ্নই নেই।

তবে বিজেপির তরফ থেকে এই ব্যাপারে যে কথাই বলা হোক না কেন, পি চিদাম্বরম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকার সময় যেভাবে অমিত শাহকে সিবিআইয়ের কু দৃষ্টিতে পড়তে হয়েছিল, সেই অমিত শাহ এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ায় পি চিদম্বরমের ওপর প্রতিশোধ নিলেন কিনা! চিদাম্বরমের গ্রেফতারে সেই আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!