এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পুজো মিটতেই বাংলায় গেরুয়া কেতন ওড়াতে অমিত শাহের নতুন রণকৌশলে কাজ শুরু

পুজো মিটতেই বাংলায় গেরুয়া কেতন ওড়াতে অমিত শাহের নতুন রণকৌশলে কাজ শুরু

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় বেশ ভাল ফলাফল করেছে। দুই থেকে একধাপে আঠারোটি আসন নিজেদের দখলে নিয়ে রীতিমত ঘাসফুল শিবিরের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে তারা। তবে বরাবরই কেন্দ্র এবং রাজ্যের বিজেপি নেতারা জানিয়ে এসেছেন, লোকসভা তাদের কাছে সেমিফাইনাল।

কিন্তু আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন তাদের কাছে ফাইনাল পর্ব। তাই সেই যেনতেন প্রকারেন বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করে রাজ্যের ক্ষমতা দখল করতেই এখন নানা পরিকল্পনা শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। আর সেই বিধানসভা নির্বাচনে বিপুলসংখ্যক আসনে জয়লাভ করতে এবার সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে জয়ী বাংলার বিজেপি সাংসদদের কাজে লাগাতে চাইছে বঙ্গ বিজেপি।

ইতিমধ্যেই গত পয়লা অক্টোবর বাংলায় এসে বাংলার নেতৃত্বদের কার্যত স্পষ্ট ভাষায় অমিত শাহ জানিয়ে দিয়েছিলেন, বিজেপি বাংলায় ক্ষমতায় আসতে চলেছে। কিন্তু তার জন্য দলের কার্যকর্তাদের আরও বেশি করে পরিশ্রম করতে হবে। আর এরপরই দলের কেন্দ্রীয় সভাপতির নির্দেশমতো শারদউৎসব মেটার পরই যাতে “মিশন 2021” কে লক্ষ্য রেখে এগোনো যায়, তার জন্য নিজেদের প্ল্যানিং করতে শুরু করেছিলেন দীলিপ ঘোষ, মুকুল রায়রা‌।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, সামনে থেকে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, দিলীপ ঘোষ মুকুল রায়েরা যুদ্ধ করলেও পেছনে সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করার কাজ করবেন সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের মত ব্যক্তিত্বরা। কিন্তু এক্ষেত্রে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে জয়ী দলের সাংসদদের বেশি করে কাজে লাগাতে চাইছে গেরুয়া শিবির।

সূত্রের খবর, সাংসদরা নিজের সংসদীয় ক্ষেত্র যেমন সামলাবেন, ঠিক তেমনি তাদের পাশের দু-একটা সংসদীয় ক্ষেত্রও তাদের সামলাতে হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু যেখানে বঙ্গ বিজেপির প্রকৃত মুখদের সামনে এনে বিজেপির “মিশন 2021” এর লড়াই, সেখানে কেন আবার সাংসদদের নিয়ে আসতে চাইছে তারা!

রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, রাজ্যের ক্ষমতা দখল করতে বিন্দুমাত্র সময় নিতে নারাজ গেরুয়া শিবির। আর তাইতো এই রাজ্যের 42 টি লোকসভা আসনের মধ্যে আঠারোটা আসন জিতলেও যে সমস্ত আসনে তারা জয়লাভ করেনি, সেই সমস্ত আসন দলীয় সাংসদদের দিয়ে যাতে দেখভাল করানো যায়, তার জন্যই বিজেপির এহেন সিদ্ধান্ত বলে মত বিশ্লেষকদের। কিন্তু এখন দেখার, দলীয় সাংসদদের বিজেপি এই গুরুদায়িত্ব দিলেও তা ঠিকমতো আদৌ তাদের সাংসদরা পালন করতে পারেন কিনা!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!