এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > চূড়ান্ত চমক অমিত শাহের- হায়দারাবাদের দখল নিতে নতুন রণকৌশলে চমকে দিলেন

চূড়ান্ত চমক অমিত শাহের- হায়দারাবাদের দখল নিতে নতুন রণকৌশলে চমকে দিলেন

সামনেই লোকসভা ভোট। আর তার আগে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে দেশের পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এই পাঁচ রাজ্যের ফলাফলেই স্পষ্ট হয়ে যাবে যে আগামী দিনে ঠিক কোন দল কেন্দ্রের মসনদ দখল করতে চলেছে। আর তাই দিল্লি দখলের সেমিফাইনালে এই লড়াইকে বাড়তি গুরুত্ব দিতে ইতিমধ্যেই ময়দানে নেমে পড়েছে গেরুয়া শিবির।

সূত্রের খবর, তেলেঙ্গানা রাজ্যকে নিজেদের বাগে আনতে এক সূক্ষ্ম চাল চাললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কিন্তু কি সেই জাদু কাঠি? জানা গেছে, তেলেঙ্গানার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ আসন চন্দ্রায়নগুট্টায় এবার নির্বাচনে লড়ছেন এআইএমআইএম নেতা আকবরুদ্দিন ওয়াইসি। কিন্তু কে এই আকবরুদ্দিন ওয়াইসি?

দেশে প্রবল বিজেপি বিরোধী মুখ হিসেবে পরিচিত সাংসদ তথা এআইএমআইএমের প্রধান আসাসউদ্দিনের ভাইই হলেন এই আকবরুদ্দিন। আর তাই সেই এআইএমআইএমকে রুখতে মাঠে নামছে বিজেপি। দলীয় সূত্রের খবর, এআইএমআইয়ের প্রধান আসাসউদ্দিনের ভাই আকবরুদ্দিনের বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে এবার লড়বেন সংখ্যালঘু মুখ বলে পরিচিত এবিভিপি নেত্রী সৈয়দ শাহেজাদি। বিজেপির একাংশের মতে, তরুণ তুর্কি এই নেত্রী এবার ভোটে আসাসউদ্দিন ও তার ভাই আকবরুদ্দিনের কালঘাম ছুটিয়ে দিতে পারেন।

জানা গেছে, তেলেঙ্গানার আদিলাবাদের বাসিন্দা এই বিজেপি প্রার্থী সৈয়দ শাহেজাদি ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় পড়ার সময়ই ছাত্র রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হয়ে পড়েন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ওপর স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করে বর্তমানে এই বিজেপির তরুণ নেত্রী ভোটে বিরোধীদেরকে জোর টক্কর দেওয়া শুরু করে দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই নির্বাচনী প্রচারে একের পর এক সেই তারই প্রতিদ্বন্দ্বী আকবরুদ্দিনের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ ছুড়ে দিচ্ছেন তিনি।

এমনকি এআইএমআইএম সুপ্রিমো আসাসউদ্দিন ও তার ভাইয়েরা সাম্প্রদায়িকতাকে হাতিয়ার করে রাজনীতি করছে বলেও বিভিন্ন জনসভায় দাবি করছেন বিজেপি প্রার্থী সৈয়দ শাহেজাদি। পাল্টা বিপক্ষ শিবির থেকে সেই বিজেপিকে উদ্দেশ্য করেই সেই সাম্প্রদায়িকতা ইস্যুতেই প্রবল তোপ দাগা হয়েছে। কিন্তু সেই সমস্ত কিছুকে নস্যাৎ করে এদিন তেলেঙ্গানার এই তরুণ তুর্কি বিজেপি প্রার্থী বলেন, “বিজেপি যেমন যুব সমাজের কথা ভাবে, তেমনি মুসলিম সমাজকেও উৎসাহিত করে। সিকান্দার ভক্ত, নাজমা হেপতুল্লা, এম জে আকবরের মতো নেতাদের কথা উল্লেখ করে এদিন বিজেপিকে অসাম্প্রদায়িক দল হিসেবেও প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করেছেন তিনি।”

তবে ভোটের লড়াইয়ে এই তরুণ নেত্রীকে নামিয়ে শেষ পর্যন্ত এআইএমআইএমের হাত থেকে তেলেঙ্গানার চন্দ্রায়নগুট্টা আসনটি নিজেদের দখলে আনতে পারে কিনা গেরুয়া শিবির এখন সেদিকেই তাকিয়ে প্রত্যেকে। তবে তেলেঙ্গানার এই সমকালীন রাজনৈতিক পরিস্থিতি এককালের বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতির সাথে হুবহু মিলে যাচ্ছে। কেননা এক সময় এই ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে এসেই দোর্দণ্ডপ্রতাপ প্রয়াত সিপিএম নেতা সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লড়ে তাকে কুপোকাত করেছিলেন রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রথমে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে “ভোটে লড়ার যোগ্য নয়” বলে পাত্তা না দিলেও পরে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই কার্যত ঘুম কেড়ে নিয়েছে বাম শিবিরের। তাই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির এই যুগে দাঁড়িয়ে তেলেঙ্গানার দোর্দণ্ডপ্রতাপ আইএমআইএমএর আকবরউদ্দিনকে ঠেকাতে সেই ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে আসা বিজেপি প্রার্থী সৈয়দ শাহেজাদি কতটা সফল হয় সেদিকেই তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!