এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আইনি জটিলতায় অমিত শাহের বঙ্গ সফর আপাতত বিশবাঁও জলে – হতাশা গেরুয়া শিবিরের অন্দরমহলে

আইনি জটিলতায় অমিত শাহের বঙ্গ সফর আপাতত বিশবাঁও জলে – হতাশা গেরুয়া শিবিরের অন্দরমহলে

রথযাত্রা নিয়ে টালমাটাল এখনো অব্যাহত, দীর্ঘ আইনি জটিলতার জেরে এখন গণতন্ত্র বাচাও নামক বিজেপির রথযাত্রা কার্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। যার ফলে অনেকটাই বিমুর্ষ রাজ্য বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে চাইছিলেন দলের নেতা কর্মীরা। কিন্তু এবার সেই দিকেও মন ভাঙতে চলেছে গেরুয়া শিবিরের।

 

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি মত অন্তত দুবার বাংলা আসার কথা জানিয়েছিলেন অমিত শাহ। এবার নিজে থেকেই তাঁর সফরের কাটছাঁট করলেন তিনি। কিন্তু কী এমন হলো যার কারণে এখনই বাংলায় পা রাখতে চাইছেন না বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি? বিশেষজ্ঞদের মতে, রাজ্যের 3 প্রান্ত থেকে বিজেপির এই রথযাত্রা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল। যা উদ্বোধনের কথা ছিল অমিত শাহের। কিন্তু আইনি জটিলতার জেনে সেই রথযাত্রা কর্মসূচি বাতিল হওয়াতে শুধুমাত্র দলীয় কার্যকর্তাদের সাথে বৈঠক করার জন্য বাংলায় আসতে চাইছেন না বিজেপির এই সেনাপতি।

প্রসঙ্গত, কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চে বিজেপির এই রথযাত্রা নিয়ে মামলা হলেও সেখানে কিছুটা আশার আলো দেখা গেলেও পরবর্তীতে ডিভিশন বেঞ্চের রায়ে অনেকটাই হতাশ হয়েছে গেরুয়া শিবির। এদিকে ডিভিশন বেঞ্চ থেকে সুপ্রিম কোর্টে বিজেপির পক্ষ থেকে যাওয়া হলেও গতকাল বিজেপি শীর্ষ আদালতে আর্জেন্ট হেয়ারিংয়ের আবেদন করলেও তা খারিজ করে দেওয়া হয়। ফলে বিজেপির রথযাত্রা নির্দিষ্ট দিনে তো বটেই আগামী জানুয়ারি মাসের আগে এই বিষয়ে কোনো দফারফা সম্ভবই নয় বলে মনে করছেন রাজ্য বিজেপির একাংশ।

আর এই রথযাত্রার সম্ভাবনা বিশবাঁও জলে চলে যাওয়ায় রাজ্য বিজেপির একাংশের উপর প্রবল ক্ষুব্ধ দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এর আগে সাংবাদিক সম্মেলন করে গত 8 ডিসেম্বর কলকাতা যাওয়ার কথা বললেও ঠিক তার আগের দিনই জানিয়ে দেওয়া হয় যে অমিত শাহ তাঁর বাংলা সফর কাটছাঁট করছেন। আর এর পরই গত 22 ডিসেম্বর তিনি কলকাতায় আসবেন বলে জানালেও পরবর্তীতে তা বাতিল করা হয়।

শোনা যাচ্ছে যে, রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের উপর তিনি ভীষণ তিনি ক্ষুব্ধ আর তাই নাকি  সম্প্রতি বিজেপির বঙ্গ নেতৃত্বকে নিয়ে দিল্লিতে একটি বৈঠক ডাকলেও সেখানে নিজে উপস্থিত না থেকে দলের শীর্ষ কেন্দ্রীয় নেতা রামলালকে দিয়েই সেই বৈঠক করান আর এই কথা বিজেপির অন্দরে এখন রীতিমতো চর্চার বিষয়। কিন্তু এই ভাবে দলের সর্বোচ্চ সেনাপতি যদি বঙ্গ নেতৃত্তের ওপর ক্ষুব্ধ হতে শুরু করেন তাহলে তো আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির পদ্ম ফোটার স্বপ্ন ভেস্তে যাবে! কেন বারবার নিজের বঙ্গ সফর কাটছাঁট করছেন অমিত শাহ?

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির অন্যতম কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের ভারপ্রাপ্ত সহ নেতা সুরেশ পূজারী বলেন, “রথ নিয়ে মামলার গতি-প্রকৃতি কোন দিকে যায় তাতে অবশ্যই নজর রাখা হচ্ছে। তাই আইনি জটিলতা খতিয়ে দেখে নিতে চাইছেন সভাপতি। এখনও পর্যন্ত তাঁর বঙ্গ সফরের কোনো দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি।”

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদিদের মত হেভিওয়েট নেতাদের বাংলায় এনে চমক দিতে চায় বিজেপি। আর তাইতো এবার দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে বাংলায় নিয়ে আসাই মূল চ্যালেঞ্জ রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!