এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > অমিত শাহের তারাপীঠ দর্শনের জৌলুশ কেড়ে নিতে অনুব্রতর বিশেষ পরিকল্পনা

অমিত শাহের তারাপীঠ দর্শনের জৌলুশ কেড়ে নিতে অনুব্রতর বিশেষ পরিকল্পনা

সামনেই 2019। এর এই লোকসভা ভোটকেই পাখির চোখ করে বঙ্গ সফরে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। যা নিয়ে বঙ্গ বিজেপি শুরু করে দিয়েছে নিজেদের তৎপরতাও। কিন্তু বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি তৃণমূলের গড়ে আসছেন তৃণমূল কি ছেড়ে কথা বলবে! তাই পাল্টা প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে তারাও। জানা গেছে, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বুধবার এই রাজ্যে আসছেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

পরের দিন সকাল দশটা নাগাদ তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিতে তৃনমূল তথা অনুব্রত মন্ডলের গড় বলে পরিচিত বীরভূমে যাবেন তিনি এবং সেখানেই শিশু মন্দিরে জেলা ও রাজ্যের নেতাদের সঙ্গে একটি বৈঠকও করবেন। তৃণমূল সূত্রে খবর; বীরভূমের মাটিতে তারা এক ইঞ্চি জমিও পদ্মফুলকে ছাড়তে নারাজ। আর তাইতো শান্তিনিকেতনে নরেন্দ্র মোদী আসার সময় যেভাবে মমতা বন্দোপাধ্যায় ও অনুব্রত মণ্ডলের ছবিতে গোটা শহরকে মুরে ফেলেছিল তারা ঠিক সে ভাবেই বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও সময়ও মোড়ে মোড়ে দেখতে পাবেন মমতা বন্দোপাধ্যায় ও অনুব্রত মণ্ডলের ফ্লেক্স। এখন থেকেই সে কাজ শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূল সূত্রের খবর, হিন্দি ও বাংলায় ছাপানো এই ফ্লেক্স রামপুরহাটের মনসুবা মোড় থেকে তারাপীঠ যাওয়ার রাস্তার দু’ধারে এই ফ্লেক্স লাগানো হবে। তারাপীঠের আগত দর্শনার্থীদের স্বাগত জানানোর কথা লেখা থাকবে যদিও বা iflix লাগানোকে নিয়ে তৃণমূলকে তীব্র কটাক্ষ করেছেন বিজেপির রাজ্য সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় তিনি বলেছেন, “এই ফ্লেক্স দিয়ে আদতে অমিত শাহকে স্বাগত জানাচ্ছে তৃণমূল। কিন্তু এভাবে এলাকায় টিকে থাকতে পারবে না তারা।”

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অপরদিকে বিজেপিকে কটাক্ষ করে বীরভূমের তৃণমূলের দাপুটে সেনাপতি তথা জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ” অমিত শাহের তারাপীঠ সফরকে আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি না। তারা মায়ের কাছে তিনি পুজো দিতে আসতেই পারেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ভিনরাজ্য থেকে বহু মানুষ এখানে পুজো দিতে আসেন তাদের ওয়েলকাম জানাও। তাই এই ফ্লেক্স লাগানো হয়েছে।এই জেলায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়ার সাহস কারুর নেই। সম্প্রতি উপ-নির্বাচন গুলিতে সেই প্রমাণ আশা করি পেয়ে গেছে বিজেপি।” রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহে বঙ্গ সফরে এসে বীরভূমের মাটিতে পা রেখে আদতে অনুব্রত মণ্ডলকেই চমকাতে চাইছেন। তবে তাঁরা যে কিছুতেই দমবে না তা ফের প্রমান করে দিলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বীরভূমের কেষ্ট।

Top
error: Content is protected !!