এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অমিত শাহকে নিয়ে আরটিআই ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য জাতীয় রাজনীতিতে – ধোঁয়াশা অনেককিছুই

অমিত শাহকে নিয়ে আরটিআই ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য জাতীয় রাজনীতিতে – ধোঁয়াশা অনেককিছুই

অমিত শাহকে নিয়ে আরটিআই ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ালো জাতীয় রাজনীতিতে। কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নিরাপত্তা খাতে কত অর্থ ব্যয় হয়, তা জানাতে অস্বীকার করলো খোদ কেন্দ্রীয় সরকার। প্রসঙ্গত  দীপক জুনেজা নামক জনৈক ব্যক্তি তথ্য জানার অধিকার আইনের মাধ্যমে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নিরাপত্তা খাতে কত অর্থ ব্যয় হয়
সেই বিষয়ে জানতে চেয়েছিলেন।

দেশের অন্য সকল মানুষের মতো জনৈক ব্যক্তিও ২০১৪ সালের ৫ ই জুলাই ওই আবেদনটি করেছিলেন। কিন্তু আবেদন করলেই যে আবেদনে সাড়া পাওয়া যাবে এমন তো নয়, তাই এক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম হলোনা। অবশ্য কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশন দীপক জুনেজাকে তথ্য জানাতে আস্বীকার করেই ক্ষান্ত হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের এই মন্ত্রকের এমন সিদ্ধান্তের কারণও ব্যখ্যা করেছে। কেন্দ্রীয় কমিশন জানিয়েছে, বিষয়টি অত্যন্ত ব্যক্তিগত। একইসাথে এই বিষয়টি অমিত শাহ’র নিরাপত্তা বিষয়কও বটে। তাই এই প্রসঙ্গে তথ্য জানানো সম্ভব নয়। দীপক জুনেজা এই নিয়ে ফের জানতে চেয়েছেন কোনও ব্যক্তিকে নিরাপত্তা দেওয়ার ক্ষেত্রে আইনটি আসলে কী! তবে সেই প্রশ্নের কোনো উত্তর মেলেনি কমিশনের তরফ থেকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে সম্পূর্ণ বিষয়টিতেই যথেষ্ট অস্বচ্ছতা রয়েছে। উল্লেখ্য যে সময় দীপক জুনেজা এই তথ্য জানার অধিকার আইনে আবেদন করেছিলেন সেইসময় অমিত শাহ দলের একজন কর্মী ছিলেন। যাঁর দায়িত্বে ছিলো দলের জাতীয় সভাপতির পদ। তিনি তখন রাজ্যসভার সদস্যও ছিলেন না। দীপক জুনেজা আরও জানতে চান, সরকার কাদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে তার একটা তালিকা প্রকাশ করা হোক। সেই আবেদনও সাড়া দিতে আগ্রহী নয় কমিশন। তবে এই আবেদন সাড়া না পাওয়ার প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তথ্য জানার অধিকার আইনের ৮(১) ও (জি) ধারা অনু‌যায়ী ‌নিরাপত্তা সংক্রান্ত ‌যেসব তথ্য দিলে কোনও ব্যক্তির জীবন বিপদসঙ্কুল হতে পারে বা তার ওপরে হামলা হতে পারে তাই এমন তথ্য দেওয়া যাবে না। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই বিষয়টি অজ্ঞাত থেকে গেলো।

Top
error: Content is protected !!