এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > চন্দ্রবাবু নাইডুকে ফেরাতে আসরে স্বয়ং অমিত শাহ, রাজ্যসভার অঙ্কে হাওয়া কি ঘুরছে?

চন্দ্রবাবু নাইডুকে ফেরাতে আসরে স্বয়ং অমিত শাহ, রাজ্যসভার অঙ্কে হাওয়া কি ঘুরছে?

বিজেপি শিবিরে পর পর আসা ধাক্কা সামলে নিয়ে আবার পুরোনো মেজাজে ফিরলেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। অন্ধ্রপ্রদেশের তেলেগু দেশম পার্টির এনডিএ জোট থেকে নিজেদের সদস্য পদ প্রত্যাহারের বেশ কিছুদিন পর এদিন বিজেপি সভাপতি, টিডিপি প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডুকে চিঠি পাঠালেন । চিঠির বয়ানে ছিলো – ”চন্দ্রবাবু নাইডুর এই সিদ্ধান্ত একতরফা এবং দুর্ভাগ্যজনক। টিডিপি-র এনডিএ ছাড়ার সিদ্ধান্তে তিনি উদ্বিগ্ন। একেবারেই একতরফা ভাবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতেই কোনও এক শ্রেণি এর পিছনে মদত দিচ্ছে। ফলে রাজ্যের উন্নয়ন বিঘ্নিত হতে পারে। তাই এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আরও একবার ভেবে দেখুন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অন্ধ্রপ্রদেশের উন্নয়নের জন্য সমস্তরকম সহায়তা করেছেন। ভবিষ্যতেও বিজেপি রাজ্যের পাশে থাকবে। বিশেষ মর্যাদায় যে সমস্ত সুযোগ দেওয়া যায়, সেইরকম আর্থিক প্যাকেজই দেওয়া হবে। কিন্তু বিশেষ মর্যাদার কথা ঘোষণা করা সম্ভব নয়। তাই বিষয়টি আর একবার ভাবার আবেদন রইল।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য টিডিপি প্রধান ও অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু কেন্দ্রের কাছে বেশ কিছুদিন যাবত অন্ধ্রপ্রদেশের জন্য ‘স্পেশাল স্ট্যাটাসে’র দাবি করছিলেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের এই দাবি কে উপেক্ষা , চন্দ্রবাবু নাইডু কে স্বভাবতই এনডিএ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করে। শুধু তাই নয় টিডিপি দলের দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও পার্টি প্রধানের নির্দেশে তাদের মন্ত্রীত্ব থেকে ইস্তফা দেন। বিজেপির এনডিএ ভাঙন রুখতে এই ব্যবহৃত এই রণনীতি কার্যতই বিরোধী শিবিরগুলির দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে উঠেছে। যদিও ওয়াইএসআর কংগ্রেস বিজেপির বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনার পর চন্দ্রবাবু নাইডুর টিডিপিও অনাস্থায় সমর্থন জারি রেখেছে। এদিকে ২৭ মার্চ কংগ্রেসের তরফে অনাস্থা আনা হবে বলে জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!