এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আমেঠি কি আর নিরাপদ নয় রাহুল গান্ধীর জন্য? নতুন পদক্ষেপে জল্পনা চরমে

আমেঠি কি আর নিরাপদ নয় রাহুল গান্ধীর জন্য? নতুন পদক্ষেপে জল্পনা চরমে

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনেই বিজেপি দাবি করেছিল কংগ্রেসের গড় বলে সুপরিচিত আমেঠিতে রাহুল গান্ধীকে পরাজিত করবে তারা। আর সেই লক্ষ্যে রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে প্রার্থী করা হয় স্মৃতি ইরানিকে। দুর্দান্ত লড়াই করলেও, অল্পের জন্য পরাজিত হতে হয় তাঁকে। কিন্তু তারপর থেকেই বিজেপি আমেঠিতে জেতার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে।

একের পর এক প্রকল্প উপহার দেওয়ার পাশাপাশি সেখানে সাংগঠনিক শক্তিরও বৃদ্ধি ঘটিয়েছে গেরুয়া শিবির। অন্যদিকে উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজবাদী পার্টি কংগ্রেসকে বাদ দিয়ে জোট করলেও, আমেঠি ও রায়বেরিলি আসন দুটি ছেড়ে রেখেছে কংগ্রেসের জন্য।

এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছিলেন অখিলেশ যাদব ও মায়াবতীর সমর্থন নিয়ে রাহুল গান্ধী খুব সহজেই আমেঠিতে জিতে যাবেন। কিন্তু, কংগ্রেসের মনেই কি সেই নিয়ে নতুন সংশয় জেগেছে। কেননা, জল্পনা ছড়িয়েছে আমেঠির পাশাপাশি রাহুল গান্ধী আরও দুই কেন্দ্র – মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের ছেড়ে যাওয়া মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়াড়া ও মহারাষ্ট্রের নান্দেদ থেকে লোকসভা নির্বাচনে লড়াই করতে পারেন। ফলে, স্বাভাবিকভাবেই গেরুয়া শিবির থেকে দাবি করা হচ্ছে, আমেঠি নিয়ে নাকি আতঙ্কে আছেন রাহুল গান্ধী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

কারণ হিসাবে বলা হচ্ছে, এক সাথে দুটি লোকসভা আসন থেকে কোনো প্রার্থীর লড়াই করার কথা শোনা যায়। ২০১৪ সালেই বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদী গুজরাটের ভদোদরা ও উত্তরপ্রদেশের বারাণসী থেকে লড়াই করেন। কিন্তু, একসাথে তিন কেন্দ্র থেকে কোনো শীর্ষস্থানীয় নেতা লড়ছেন – এক কথায় নজিরবিহীন। এর পাল্টা কংগ্রেস শিবিরের তরফে দাবি করা হচ্ছে, আমেঠিতে রাহুল গান্ধী লড়লেও – যেহেতু উত্তরপ্রদেশের মহাজোটে কংগ্রেস নেই, তাই আশেপাশের আসনগুলোতে সেইভাবে কংগ্রেসের ফায়দা হবে না।

অন্যদিকে, মধ্যপ্রদেশে সদ্য বিজেপিকে হারিয়ে কংগ্রেস ক্ষমতায় এসেছে। এমনকি, মাহারাষ্ট্রেও বিজেপি-শিবসেনা জোট থাকছে না। এই পরিস্থিতিতে ওই দুই রাজ্যে রাহুল গান্ধী নিজে লড়াই করা মানে, আশেপাশের আসনগুলিকেও তিনি যথেষ্ট প্রভাবিত করতে পারবেন। তবে রাহুল গান্ধীর পাশাপাশি, সোনিয়া গান্ধীর রায়বেরিলি আসন থেকেও লড়াই করা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

সোনিয়া গান্ধী এমনিতেই শারীরিকভাবে প্রচন্ড অসুস্থ – প্রায়ই চিকিৎসার জন্য তাঁকে আমেরিকাতে থাকতে হয়। এই পরিস্থিতিতে নির্বাচনে লড়ার মত শারীরিক ধকল তিনি নিতে পারবেন কিনা সন্দেহ জেগেছে। সেক্ষত্রে হয়ত কংগ্রেস সমর্থকদের আবেগকে গুরুত্ব দিয়ে রায়বেরিলি থেকে কংগ্রেস প্রার্থী হতে পারেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

Top
error: Content is protected !!