এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > মাটি খুঁড়লেই বের হচ্ছে ড্রাম ড্রাম বোমা, আমডাঙা এখনো বারুদের স্তুপ!

মাটি খুঁড়লেই বের হচ্ছে ড্রাম ড্রাম বোমা, আমডাঙা এখনো বারুদের স্তুপ!

বোমার স্তুপ যেন গোটা আমডাঙায়। গত 28 আগষ্ট রাতে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে উত্তর 24 পরগনার তারাবেড়িয়া পঞ্চায়েতের বইছগাছি গ্রামে বোমা ও গুলিবৃষ্টিতে তৃনমূলের দুই এবং সিপিএমের এক কর্মী মারা যান। আর এরপর থেকেই একের পর এক বোমা উদ্ধার হয়েছে এই আমডাঙায়।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, সিপিএমই এলাকায় বোমা তৈরিরির কারখানা বানিয়ে রেখেছিল। আর তাই এবারে আর প্রশাসন নয়, খোদ গ্রামবাসীরাই এই আমডাঙাকে বোমামুক্ত করার উদ্দেশ্যে পথে নামলেন।

সূত্রের খবর, এদিন এলাকার এক সিপিএম নেতার বাড়িতে গিয়ে গ্রামবাসীরা দেখেন যে, মাটি খোড়ার একটি দাগ রয়েছে। আর তা দেখেই সন্দেহ হয় এলাকাবাসীর। আর এরপরেই একদল গ্রামবাসী মাটি খুড়ে পুকুরের ধার, জমি এবং বাগানের ভেতর থেকে মাটি খুড়ে প্লাষ্টিকের ছোটো ছোটো ড্রামে ভর্তি বোমা উদ্ধার করে।

জানা গেছে,  এই বোমার মধ্যে যেমন রয়েছে কালো মশলার সুতলি বোমা ঠিক তেমনই রয়েছে লাল মশলা এবং হ্যান্ড গ্রেনেডের মত শক্তিশালী পিন বোমাও। এদিকে এই বোমা যেই ব্যাক্তির বাড়িতে উদ্ধার হয় সেই বোমা উদ্ধারের পরই ওই ব্যাক্তির বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভাযোগ ওঠে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে এলাকায় পুলিশ আসলে তাঁদেরও এই গ্রামবাসীদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গ্রামবাসীদের দাবি, এখনও এলাকায় প্রচুর বোমা মজুত আছে। পুলিশকে আরও সক্রিয় হতে হবে।অপরদিকে এই বোমা মজুত কান্ডে যাঁদের বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ সেই সিপিএমের উত্তর 24 পরগনার জেলা সম্পাদক মৃনাল চক্রবর্তী বলেন, “আমাদের কর্মীদের জেলে ঢোকাতেই এইসব চক্রান্ত করা হচ্ছে। পুলিশ শাসকদলের হয়ে কাজ করছে।” তবে এই ব্যাপারে রাজনৈতিক কুটকচালি পর্যায়েই যাক না কেন! আমডাঙার বইছগাছি গ্রামের মানুষ এখন চান শুধুই শান্তি এবং সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশ।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!