এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অ্যাম্বুল্যান্স হাতিয়ে নিয়েছেন দিলীপ ঘোষ! মামলা দায়ের করল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা

অ্যাম্বুল্যান্স হাতিয়ে নিয়েছেন দিলীপ ঘোষ! মামলা দায়ের করল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা

আবার বিতর্কে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এবার তাঁর নামে, হীরাপুরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নিয়ে এল বিস্ফোরক অভিযোগ। সংস্থাটি উদ্বোধনের নাম করে একটি অ্যাম্বুল্যান্স হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ আনলো বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, এই অভিযোগে আসানসোল আদালতে দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরও করা হলো।

আদালতের তরফে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্যে আসানসোল দক্ষিণ থানাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বার্ণপুরের হীরাপুরের ঐ সংস্থার কর্ণধার প্রিন্স পাঠক এদিন এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ২০১৬ সালের জুলাই মাসে সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে এক সমাজসেবী একটি অ্যাম্বুল্যান্স দান করেছিলেন। সেই সময় ঐ অ্যাম্বুলেন্সের উদ্বোধন করার জন্যে ঐ সংস্থার পক্ষ থেকে দিলীপ ঘোষকে অনুরোধ করা হয়। দিলীপবাবু সেই প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছিলেন সেই মতো অ্যাম্বুল্যান্সের গায়ে উদ্বোধক হিসেবে তাঁর নামও লেখা হয়েছিলো।

তাঁর আরো অভিযোগ, কিন্তু আসানসোলে গিয়ে দিলীপবাবু নাকি সেটি উদ্বোধন করার সময় পাননি। তাই তিনি অ্যাম্বুল্যান্সটি কলকাতায় পাঠিয়ে দিতে বলেন। দিলীপবাবুর নির্দেশে ঐ সংস্থার পক্ষ থেকে অ্যাম্বুলেন্সটি কলকাতা নিয়ে যাওয়া হয় বলেও দাবি করেন প্রিন্স পাঠক। কিন্তু কলকাতা যাওয়ার পরে শুরু হয় নতুন বিপত্তি।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রিন্স পাঠকের অভিযোগ, দিলীপবাবু এবার তাঁর বিধানসভা কেন্দ্র খড়্গপুরে অ্যাম্বুলেন্সটি উদ্বোধন করার প্রস্তাব দেন। তখন এই সংস্থা সেই প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়ে আবার অ্যাম্বুল্যান্স খড়্গপুরে নিয়ে যায়। অবশেষে সেখানে দিলীপবাবু সংস্থার কর্তা ব্যক্তিদের সম্মুখেই অ্যাম্বুলেন্সের উদ্বোধন করেন। কিন্তু উদ্বোধনের পর তিনি কয়েকদিন ওই অ্যাম্বুল্যান্সটি খড়্গপুরে রেখে দিতে বলেন। সংস্থার পক্ষ থেকে সেই কাজে আপত্তি করা হয়নি বলে জানালেন প্রিন্স পাঠক।

কিন্তু তারপর থেকে এখনও পর্যন্ত নাকি ওই অ্যাম্বুলেন্স ফেরত পায়নি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি – এমনটাই জানালেন সংস্থার কর্ণধার প্রিন্স পাঠক। আর তাই সংস্থাটি অনন্যপায় হয়ে আদালতের স্মরণাপন্ন হয়েছে বলে দাবি। এদিকে এই বিষয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ একদমই বিপরীত কথা জানালেন। দিলীপবাবু বলেন, যে সংস্থা মামলা করার কথা বলেছে তারাই ওই অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যয়ভার চালাতে পারবে না বলে তাঁর কাছে মানুষের প্রয়োজনে ব্যবহার কররা আবেদন জানিয়ে রেখে এসেছিলো।

দিলীপবাবুর আরো দাবি, সমস্ত বিষয়ের উপযুক্ত প্রমাণপত্র তাঁর কাছে আছে। শুধু তাই নয় বরং পালটা অভিযোগ করে দিলীপ বাবু বলেন, যে ব্যক্তি ওই সময় ওই সমাজসেবী সংস্থাকে অ্যাম্বুল্যান্সটা দিয়েছিলেন তিনি পরে তৃণমূলে চলে যান। ওই অ্যাম্বুলেন্সের মালিকানা সংক্রান্ত সব কাগজপত্র আমার কাছে আছে। ওরা মামলা করেছে শুনেছি। তবে এই মামলা টিকবে না। তবে এই প্রসঙ্গে আদালতের নির্দেশ পাওয়ার পর আসানসোল দক্ষিণ থানা কি পদক্ষেপ নিয়েছে এখনো জানা যায় নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!