এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘সুর্পনখা’ বলে কুরুচিকর আক্রমন বিজেপি নেতার

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘সুর্পনখা’ বলে কুরুচিকর আক্রমন বিজেপি নেতার

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কু কথা বলার অভ্যেস রাজ্যের বিজেপি নেতাদের কাছে নতুন কিছু নয়। এবার সেই তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্ত হলো উত্তরপ্রদেশের বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিং। এদিন বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘সুর্পণখা’ বলে অ্যাখ্যায়িত করলেন। শুধু সুর্পণখা বলেই তিনি থেমে রইলেন না তিনি আত্মবিশ্বাসের সাথে আরোও বললেন ,” বাংলা শীঘ্রই জম্মু-কাশ্মীরে রূপান্তরিত হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

আর বাংলা থেকে চলে যেতে হবে হিন্দুদের।”  বিজেপি নেতার এই মন্তব্যের পর স্বভাবতই রাজনৈতিক মহলে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়লেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দলীয় সদস্যদের দেওয়া আচরণবিধি সংক্রান্ত পরামর্শের দানের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই দলীয় কর্মীর এহেন আচরনে কার্যত হতবাক প্রধানমন্ত্রী। উল্লেখ্য কয়েক ঘন্টা আগেই প্রধানমন্ত্রী দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে তাঁর পরামর্শ বার্তায় জানিয়েছিলেন, ”কোনও কুরুচিকর মন্তব্য নয়, ক্যামেরা দেখেই বেশি কথা বলবেন না। নীরব থাকতে শিখুন।” কিন্তু সেই পরামর্শকে অগ্রাহ্য করেই উত্তর প্রদেশের বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিং পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে কুরুচিকর আক্রমনে মুখর হলেন। এদিন তিনি দাবি করে বললেন, “বাংলার হিন্দুরা আদৌ নিরাপদ নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজত্বে হিন্দুরা আক্রান্ত হচ্ছে। রাস্তায় পড়ে মারা যাচ্ছে। অথচ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়োর কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই। তিনি কোনও পদক্ষেপ না নিয়ে হাত গুটিয়ে বসে রয়েছেন। বাংলায় সুর্পণখার ভূমিকা পালন করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এখনই এই পরিস্থিতির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। বিজেপিকেই সেই পদক্ষেপ নিতে হবে। তা না হলে জম্মু-কাশ্মীরে পরিণত হবে বাংলা। বাংলার বাড়ি হিন্দুদের হলেও, সেই বাড়িতে থাকবে মুসলিমরা।” এইবারই প্রথম নয় এর আগেও নানা বেফাঁস মন্তব্য করে সমালোচিত হয়েছেন এই বিজেপি নেতা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!