এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > কলেজে অস্থায়ী কর্মী নিয়োগে স্বজনপোষণের অভিযোগে চাপ বাড়াচ্ছে বিরোধীরা, তদন্তে ডিএম – অস্বস্তি শাসকদলে

কলেজে অস্থায়ী কর্মী নিয়োগে স্বজনপোষণের অভিযোগে চাপ বাড়াচ্ছে বিরোধীরা, তদন্তে ডিএম – অস্বস্তি শাসকদলে

এবার স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠল কলেজের অস্থায়ী কর্মী নিয়োগে। আরএসপি, কংগ্রেস ও বিজেপি একযোগে আন্দোলনে নেমেছে কুমারগঞ্জ কলেজে ১৬ জন অস্থায়ী কর্মীর নিয়োগকে কেন্দ্র করে। আর সম্মিলিত বিরোধীদের আন্দোলনের জেরে এই নিয়ে তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলাশাসক দীপাপ প্রিয়া বলে সূত্রের খবর।

প্রসঙ্গত এর আগে, একই জেলার বালুরঘাট পুরসভায় অস্থায়ী কর্মী নিয়োগ নিয়েও উঠেছিল স্বজনপোষণের অভিযোগ। আর বালুরঘাট পুরসভায় হোক বা কুমারগঞ্জ কলেজ প্রতিটা জায়গাতেই বিরোধীদের আঙুল উঠেছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। বিরোধীদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে কর্মী নিয়োগে শাসকদলের নেতারা স্বজনপোষণ করে চলেছেন তাতে জেলাবাসী ক্ষুব্ধ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এর পরিপ্রেক্ষিতে দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলাশাসক দীপাপ প্রিয়া সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন – এই বিষয়ে তিনি মৌখিক অভিযোগ পেলেও এখনও কোন লিখিত অভিযোগ পান নি। তবে, অভিযোগ ওঠায় তিনি নিজে এই নিয়ে তদন্ত করবেন বলে জানিয়েছেন। অন্যদিকে, অভিযোগের আঙুল শাসকদলের দিকে ওঠায় লোকসভা নির্বাচনের আগে তীব্র অস্বস্তিতে তারা।

জেলাশাসকের পাশাপাশি দলীয় স্তরেও বিষয়টি নিয়ে তদন্ত হবে বলে দক্ষিণ দিনাজপুর যে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে। এই ব্যাপারে সব থেকে বেশি সরব এবিভিপি। সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, প্রাক্তন বিধায়কের ছেলে থেকে শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেসের বর্তমান ও প্রাক্তন পদাধিকারীদের নিকাত্মীয়রাই এখানে কাজ পেয়েছে। সম্পূর্ণভাবে অবৈধ এই নিয়োগ – অবিলম্বে তা বাতিল করতে হবে।

শাসকদলের অস্বস্তি আরও বেড়েছে – এই নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদাও সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খোলায়। উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বাচ্চুবাবু জানিয়েছেন, জেলা তৃণমূলের প্রভাবশালী নেতাদের মদতে এ সব চলছে। আর রাজ্যের মন্ত্রী এইভাবে প্রকাশ্যে মুখ খোলায় সমগ্র বিষয়টি নিয়ে গোটা জেলা জুড়ে বৃহত্তর আন্দোলনে নামতে চলেছে বিরোধী দলগুলি বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!