এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জল্পনা বাড়িয়ে বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রাক্তন বিজেপি নেতার পাশে সব দল?

জল্পনা বাড়িয়ে বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রাক্তন বিজেপি নেতার পাশে সব দল?

রাজনীতি বড়ই অদ্ভুত জিনিস। সেখানে চিরশত্রু, চিরমিত্র বলে কোনো কথা থাকে না। তবে এই দুটি শব্দ যে থাকে না, সেটা বললেও বড় ভুল হবে। কেননা অতীতে কোনো নেতা বা নেত্রী তার বিরুদ্ধ দলের রাজনৈতিক নেতা নেত্রীকে আক্রমণ করে – পরবর্তীতে আবার তারাই তাদের প্রশংসা করেন। ফলে রাজনীতিবিদদের চরিত্র বোঝা বড়ই দায়। আর এবার ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনে এরকমই অদ্ভুত কিছু ঘটনা নজরে এল। মন্ত্রিসভায় থেকে দুর্নীতি নিয়ে সরব হয়ে প্রথমে বিজেপি সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

আর এবার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হয়ে বিজেপির চিন্তা বাড়িয়ে দিলেন সরযূ রাই। জানা গেছে, গত রবিবার পর্যন্ত ঝাড়খণ্ডের বিজেপির রঘুবর দাসের মন্ত্রীসভার খাদ্য এবং গণবণ্টন দপ্তরের মন্ত্রী ছিলেন তিনি। মাঝেমধ্যেই বিজেপির নানা দুর্নীতি নিয়ে প্রকাশ্যেই সরব হতে দেখা যায় তাকে। যার জেরে বারেবারেই প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছিল গেরুয়া শিবির। আর এবার ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনের আগে এহেন বিতর্কিত মন্ত্রীকে প্রার্থী করা হবে কিনা, তা নিয়ে বিজেপির অন্দরে প্রবল জলঘোলা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষদিন পর্যন্ত সেই সরযূ রাইয়ের নাম প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেনি গেরুয়া শিবির। আর এই পরিস্থিতিতে নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন এই সরযূ রাই। আর তিনি দাঁড়াচ্ছেন একেবারে মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি প্রার্থী রঘুবর দাসের বিরুদ্ধে! আশ্চর্যজনকভাবে তিনি নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার সাথে সাথেই তাকে সমর্থন দিয়েছে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলো। যা ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির অস্বস্তিকে অনেকটাই বাড়িয়ে দিচ্ছে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই বিজেপির শরিকদল জেডিইউয়ের নীতীশ কুমার জামশেদপুর পুর্ব আসনে সরযূ রাইকে সমর্থনের কথা জানিয়ে দিয়েছেন। প্রয়োজনে তিনি প্রাক্তন বিজেপির হয়ে প্রচারে নামবেন বলে জানিয়ে দিতে দেখা গেছে তাকে। পাশাপাশি ঝাড়খণ্ডের প্রধান বিরোধীদল ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার নেতা হেমন্ত সোরেন এই সরযূ রাইকে সমর্থনের আবেদন জানিয়েছেন। ফলে প্রাক্তন বিজেপি নেতার লড়াই যে ক্রমশ জোরদার হচ্ছে – বলাই বাহুল্য। যে নিঃসন্দেহে গেরুয়া শিবিরের অস্বস্তি বাড়াবে।

আর বিজেপির প্রাক্তন মন্ত্রী এইভাবে বিজেপির বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানোয় এখন বিরোধীরা যে অনেকটাই ফায়দা লুটতে পারে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত রাজনৈতিক মহল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা প্রাক্তন বিজেপি নেতা সরযূ রাইকে যেভাবে বিরোধীরা সমর্থন করার কথা জানিয়েছেন, তাতে বিজেপি এখানে কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে পড়ে যাবে। তবে বিজেপির এই ব্যাকফুট কতটা গভীর ক্ষতে পরিণত হয়, সেদিকেই আপাতত তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!