এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নতুন মোড় নিল DA মামলা,আশায় বুক বাঁধছেন সরকারি কর্মীরা

নতুন মোড় নিল DA মামলা,আশায় বুক বাঁধছেন সরকারি কর্মীরা

DA মামলা এবার নতুন মোড় নিল।”DAবা মহার্ঘ ভাতা হল রাজ্য সরকারের দয়ার দান”। স্যাটের এই মন্তব্যকে তিরস্কার করল কলকাতা হাইকোর্ট। বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত এবং বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ এদিন মন্তব্য করেন যে,”DAবা মহার্ঘ ভাতা হল রাজ্য সরকারের দয়ার দান”।‘‘এই মন্তব্য স্যাট কেন করেছে, তার ব্যাখ্যা রায়ে স্পষ্ট নয়’’।পাশাপাশি বিচারপতি বলেন যে রাজ্য সরকার যদি মনে করে,”DAবা মহার্ঘ ভাতা হল রাজ্য সরকারের দয়ার দান” তাহলে সরকারকে তার ব্যাখ্যা দিতে হবে।এদিন ১৯৫৪ সালে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া একটি রায়ের উল্লেখ করে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল (এজি) কিশোর দত্ত বলেন, ‘‘DAদেওয়ার কোনও যৌক্তিকতা নেই। আর্টিকেল ১৪-কে তা লঙ্ঘন করছে। DA দেওয়ার মধ্যে রাজ্যের কোথায় আইনি কর্তব্য রয়েছে, মামলাকারীর আইনজীবী সর্দার আমজাদ আলি তা তো কোথাও বলেননি। মামলাকারীরা মূলত কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের DA-র শতাংশের ফারাক নিয়ে উদগ্রীব। ওরা একদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে ভাবল— DA পাচ্ছে না, আর অমনি চলে এল কোর্টে!’’অন্যদিকে স্যাটের রায় নিয়ে তিনি বলেন, ‘‘স্যাটের রায় ঠিক না ভুল এ নিয়ে আমি কোনও মন্তব্য করব না।’’এই নিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ প্রশ্ন তোলেন যে, ‘‘আর্টিকেল ৩০৯-কে মেনে রাজ্য সরকার তো ২০০৯ সালে রিভিশন অ্যান্ড পে আলাওয়েন্স বা রোপা রুল এনেছে। রোপা হল কন্ডিশন অব সার্ভিস। এটা তো সরকারের একটা পলিসি। তাহলে DA পাওয়ার ক্ষেত্রে রোপা রুল কি কোনও আইনি অধিকার দেয় না সরকারি কর্মচারীদেরকে?’’তখন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল (এজি) কিশোর দত্ত জবাবে বলেন, ‘‘DA’র সঙ্গে রোপা রুলের কোনও যোগ নেই। আমি বলব,DA পাওয়া কোনও আইনি অধিকার নয়।’’আগামী সোমবার এই নিয়ে বিশদে ব্যাখ্যা দেবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।
স্যাটের দেওয়া এই রায়কে ‘‘DA বা মহার্ঘ ভাতা হল রাজ্য সরকারের দয়ার দান।’ঘিরে প্রশ্ন যখন উঠেছে তখন সরকারীকর্মীরা আশা করছেন যে তারা সুবিচার পাবেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!