এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রীর আত্মত্যাগ ও লড়াই জাতীয় স্তরে পৌঁছাতে তৃণমূলের সোশ্যাল সেলের বিশেষ উদ্যোগ

মুখ্যমন্ত্রীর আত্মত্যাগ ও লড়াই জাতীয় স্তরে পৌঁছাতে তৃণমূলের সোশ্যাল সেলের বিশেষ উদ্যোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা: আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন – আর তারপরেই আপামর তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকের প্রাণের অনুষ্ঠান ২১ শে জুলাইয়ের শহীদ দিবস। এবারে শহীদ দিবসের রজত জয়ন্তী বর্ষ, আর তাই বিপুলাকারে এর আয়োজনে কোনো খামতি রাখতে রাজি নয় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় ২১ শে জুলাইকে সাফল্যমন্ডিত করার বার্তা নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী থেকে মানস ভূঁইয়া, সুব্রত বক্সী থেকে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক – একের পর এক শীর্ষ নেতা। কিন্তু এবারের ২১ শে জুলাইকে আর বাংলার গন্ডিতে আটকে রাখতে চান না তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষনেতারা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আত্মত্যাগ ও লড়াইয়ের এই জ্বলন্ত উদাহরণকে পৌঁছে দেওয়ার ভাবনা জাতীয় স্তরেও। আর এই কাজে শাসকদল এবার বিশেষ ভরসা রাখতে চলেছে তাদের সোশ্যাল মিডিয়া সেলের সৈনিকদের উপরে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তাই অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস সোশ্যাল মিডিয়া সেল বা এআইটিসিএসএমসির উদ্যোগে গত রবিবার পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোকে নিয়ে কর্মী সম্মেলন আয়োজিত হল পুবালী হলে। সভায় উপস্থিত ছিলেন ৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রতিনিধি গৌতম হালদার। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বীরভূম, বাঁকুড়া, নদীয়া, মালদহ, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর চব্বিশ পরগনা, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা এবং হুগলী জেলার কর্মীরা। ২১ শে জুলাইয়ের শহীদ দিবসের প্রস্তুতির পাশাপাশি এদিন অমিতাভ রায়ের (কার্যকরী সভাপতি) নেতৃত্বে পূর্ব বর্ধমান জেলা অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের সোসাল মিডিয়া কমিউনিটির জেলা কমিটি গঠিত হলো।

Top
error: Content is protected !!