এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > আবার দিলীপ ঘোষকে ঘিরে স্থানীয়দের বিক্ষোভ, মার খেলেন গাড়িরচালক

আবার দিলীপ ঘোষকে ঘিরে স্থানীয়দের বিক্ষোভ, মার খেলেন গাড়িরচালক

গতকাল সন্ধ্যায় কুশমণ্ডির লোহাগঞ্জ এলাকায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের দলীয় প্রচারে গিয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেখানকার প্রচার কাজ শেষ করে গঙ্গারামপুরের দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। সেইসময় এলাকার স্থানীয় মানুষদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন দিলীপবাবু বলে বিজেপি সূত্রে অভিযোগ। বিজেপির দলীয় সূত্রে আরো দাবি এদিন দিলীপ বাবুর গাড়ির সামনে দলীয় কর্মীদের একটি ট্যাক্সি ছিল। রাস্তায় বংশীহারির সিওল মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মোটরবাইকের সঙ্গে ট্যাক্সির ধাক্কা লাগলে বাইকটি পড়ে যায়। এতেই এলাকার মানুষজন ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে। প্রসঙ্গত, গত শনিবার দলীয় প্রচারকার্যে মালদহের ইংরেজবাজার ব্লকের ফুলবাড়িয়া অঞ্চলে উপস্থিত হয়ে দিলীপ বাবুকে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান শুনতে হয়েছিল। এমনকি ঐ এলাকার মহিলারা বিক্ষোভ দেখানোর সময় দিলীপবাবুকে পড়ার জন্যে কন্যাশ্রী প্রকল্পের বইও এগিয়ে দেন।

সেই প্রসঙ্গে দিলীপ বাবু অভিযোগ জানিয়ে বলেছিলেন, এই ঘটনার পিছনে তৃণমূল কংগ্রেসের ভূমিকা রয়েছে। অবশ্য তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি কল্যাণ মণ্ডল দাবি করেন, গ্রামের মহিলারাই বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। এদিনের ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপি শিবির দাবি করে দিলীপ বাবুর গাড়ি ঘিরে রেখে হেনস্তার পিছনে রাজ্যের শাসক দলের ভূমিকা রয়েছে। এছাড়াও তাঁরা অভিযোগ করে বলেন যে, বিজেপির দলীয় কর্মীরা যে ট্যাক্সিতে ছিল, তার চালককে মারধর করা হয় এবং দিলীপ বাবুর নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গেও কয়েক জনের হাতাহাতি হয়। জানা গেছে তবে পুলিশের গাড়ি পিছনে থাকায় বিক্ষোভ দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। ট্যাক্সি রেখে দলের নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে দিলীপবাবুও এলাকা ছেড়ে চলে আসেন। এদিনের ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার বললেন, তৃণমূলের সংস্কৃতিই এটা। ওরা কারণ ছাড়াই বিক্ষোভ দেখায়। অন্যদিকে বংশীহারি ব্লকের তৃণমূল নেতা অখিল বর্মন বলেন, দিলীপই সারাদিন মানুষকে উত্তেজিত কথাবার্তা বলেন, এতে মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছে, এর সঙ্গে দলের যোগ নেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!