এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কাননের পর বিজেপিতে আসতে চাইছেন দিদির আরেক ঘনিষ্ঠ ভাই এমনটাই দাবি বিজেপি সাংসদের – জেনে নিন বিস্তারিত

কাননের পর বিজেপিতে আসতে চাইছেন দিদির আরেক ঘনিষ্ঠ ভাই এমনটাই দাবি বিজেপি সাংসদের – জেনে নিন বিস্তারিত


খুব বেশিদিন হয়নি বিজেপিতে যোগদান করেছেন মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ কানন ওরফে শোভন চট্টোপাধ্যায়। দলে যোগদান করেই শোভন চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তৃণমূল দলে কাজের পরিবেশ নেই। তাই তিনি সরে গিয়েছেন। এবার আরো একজনের নাম উঠলো মমতা ব্যানার্জির পাশ থেকে সরে যাওয়ার, মুখ্যমন্ত্রীর একান্ত অনুগত কেষ্ট ওরফে অনুব্রত মন্ডল। অনুব্রতের গড়ে দাঁড়িয়েই এই কথা বললেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

এদিন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ দাবি করেন, তৃণমূল জমানায় নানান কুকীর্তির ফলে অনুব্রত মণ্ডলের ওপরে একাধিক মামলা ঝুলছে আর তা থেকে বাঁচতেই অনুব্রত মণ্ডল বিজেপিতে আসতে চাইছেন।

বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বর্তমানে বীরভূমের পর্যবেক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন এবং সেই সূত্রেই মঙ্গলবার জেলায় আসেন তিনি। অনুব্রত মণ্ডলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে এদিন তিনি বলেন, লোকসভা ভোটে তিনশো গুন্ডা নিয়ে অনুব্রত মণ্ডল সৌমিত্র খাঁকে আটকাতে গিয়েছিল কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। আক্রমণের ধার বাড়িয়ে অনুব্রত মণ্ডলকে তিনি কয়লা মাফিয়া, বালি চোর ইত্যাদি বলেও অভিযুক্ত করেন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

শুধু অনুব্রত মণ্ডলকেই না তিনি বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং কেও আক্রমণ করতে ছাড়েননি। পরিষ্কার করে সৌমিত্র খাঁ এদিন জেলা পুলিশ সুপারকে তৃণমূল জেলা সভাপতি বলে অভিযুক্ত করেন। কারণ তাঁর নির্দেশেই বিজেপি দলের ওপর নানাভাবে আক্রমণ হচ্ছে বীরভূম জেলায়।

সৌমিত্র খাঁ এদিন দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে জঙ্গী আন্দোলনে নামার নির্দেশ দেন। তিনি জেলায় যে কোন রকম ঘটনা ঘটলেই তার বিরুদ্ধে সক্রিয় আন্দোলনের নির্দেশ দেন। সাথে তিনি এও বলেন যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসের সাথে, বিধানসভা নির্বাচনের আগে থেকেই পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হবে। ফলে প্রশাসন নিরপেক্ষভাবে কাজ করবে সুতরাং তৃণমূলের হার নিশ্চিত।

তবে বিজেপি দলে সম্প্রতি গড়ে ওঠা গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে প্রত্যেকের মতন সৌমিত্র খাঁ কেও চিন্তিত শোনালো এদিন। তিনি দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে সুষ্ঠভাবে দলীয় কাজকর্ম করার ও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বন্ধ করার নির্দেশ দেন।

এদিন সৌমিত্র খাঁর চাঞ্চল্যকর দাবির পরেও তৃণমূল দলের অনুব্রত মহল থেকে কোন রকম প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। তবে, ভবিষ্যতে কাননের অনুসরণকারী কেষ্ট হবেন কি না তা সময়ই বলবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!