এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > চন্দন মিত্রের পর আরেক হেভিওয়েট বিজেপি নেতার তৃণমূলে যোগদান ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

চন্দন মিত্রের পর আরেক হেভিওয়েট বিজেপি নেতার তৃণমূলে যোগদান ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

এগিয়ে আসছে ২১ শে জুলাই – সেইদিন রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের শহীদ দিবস পালনের পাশাপাশি, ঘাসফুল শিবিরের কর্মী-সমর্থকদের উৎসাহ থাকে অন্যদল থেকে কে কে যোগ দিলেন তাঁদের দলে। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু নেতা-বিধায়ক-সাংসদের নাম নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম হলেন বিজেপির দুবারের রাজ্যসভার সংসদ চন্দন মিত্র।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গতকালই জল্পনা ছড়ায় তিনি বিজেপি থেকে পদত্যাগ করেছেন। কিন্তু সেই ব্যাপারে তিনি নিজে মুখে কুলুপ আঁটেন, এমনকি তাঁর পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে কিনা তা নিয়েও বিজেপির তরফে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি। এর মাঝেই আজ সকাল থেকে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হতে পারে চন্দন মিত্র ২১ শে জুলাই তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করছেন। যদিও এই বিষয়েও আগের মতোই নিশ্চুপ তিনি নিজে।

আর চন্দনবাবুর দলত্যাগের এই জল্পনার মাঝেই আরেক হেভিওয়েট বিজেপি নেতা তথা গত বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিপরীতে বিজেপির টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা চন্দ্রকুমার বসুর বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান নিয়ে জল্পনা ছড়ালো। এই জল্পনা আরো প্রবল হয়েছে যেহেতু কিছুদিন আগেই বাংলায় দলীয় নেতৃত্ত্বের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন তিনি। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর মেদিনীপুরের জনসভাতেও যাননি তিনি।

তবে এব্যাপারে চন্দ্রবাবু নিজে জানিয়েছেন, আমি রাজ্যে দলের কিছু কাজকর্ম নিয়ে ক্ষুব্ধ ঠিকই – কিন্তু ‘এখনই’ দল ছাড়ার কথা ভাবছি না। কিন্তু তিনি না ভাবলেও, শাসকদলের অন্দরে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে তাঁর তৃণমূলে আগমনের কথা। এমনকি অতি উৎসাহী কিছু নেতা-কর্মীর কথায় চন্দ্রবাবুর জন্য কলকাতা বা শহরতলিতে একটি লোকসভা আসনে দলীয় টিকিটের কথাও ভাবা হচ্ছে। ফলে সবমিলিয়ে ২১ শে জুলাই ঘিরে ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছে রাজ্য-রাজনীতিতে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!