এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অর্জুন সিং বিজেপিতে যেতেই একযোগে ছ-ছখানা ‘খাঁড়ার ঘা’ নেমে আসছে শাসকদলের জন্য?

অর্জুন সিং বিজেপিতে যেতেই একযোগে ছ-ছখানা ‘খাঁড়ার ঘা’ নেমে আসছে শাসকদলের জন্য?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – অনেক জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে একদা তাঁর রাজনৈতিক ‘শত্রু’ মুকুল রায়ের হাত ধরে অবশেষে গেরুয়া শিবিরে পা রাখলেন ভাটপাড়ার দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক ও ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের ভোট-ম্যানেজার অর্জুন সিং। অর্জুনবাবুর বিজেপিতে যোগদান নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই জল্পনা চলছিল – এমনকি, তাঁর গেরুয়া যাত্রা থামাতে আসরে নেমেছিলেন স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নে ডেকে একান্তে বৈঠক করে বা মন্ত্রিত্বের ‘টোপ’ দিয়েও অবশ্য শেষ রক্ষা করা গেল না – অর্জুন সিং নাম লেখালেন মুকুল রায়ের দেখানো পথেই।

তবে, এতদিন যেসকল তৃণমূল কংগ্রেস বা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ নেতা বিজেপিতে যোগদান করেছেন, তার ফল হয়েছিল একমুখী। কিন্তু অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগদান করতেই একেবারে ছ-ছটি মারাত্মক আক্রমন নেমে আসতে চলেছে ঘাসফুল শিবিরের জন্য। নির্বাচনের আগে, যার ধাক্কা ‘গদ্দার’ বা ‘আবর্জনা’ শব্দবন্ধনী দিয়ে কতটা মেক-আপ করা যাবে, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দিহান রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। অর্জুন সিং বিজেপিতে যাওয়ার পর প্রথম ধাক্কাটা আসতে চলেছে সম্ভবত তাঁরই আত্মীয় তথা নোয়াপাড়া বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক সুনীল সিংয়ের গেরুয়াকরণের মাধ্যমে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

তবে, এখানেই শেষ নয়, সূত্রের খবর ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের পাঁচ-পাঁচটি পুরসভা হাতছাড়া হতে চলেছে ঘাসফুল শিবিরের। যে কায়দায় এতদিন তৃণমূল কংগ্রেস বিরোধীদের হাত থেকে পুরসভা ছিনিয়ে নিয়ে সেখানে ঘাসফুল ফোটাত, কার্যত সেই একই কায়দায় নিখুঁত ‘অপারেশন’ চালিয়ে ঘাসফুল পরিচালিত পাঁচ পুরসভায় এবার ফুটতে চলেছে পদ্মফুল। সূত্রের খবর, ভাটপাড়া, হালিশহর, নৈহাটি, পানিহাটি ও খড়দহ পুরসভার একাধিক কাউন্সিলর অর্জুন সিংয়ের দেখানো পথেই যোগ দিতে চলেছেন বিজেপিতে। তবে, তাঁরা ঠিক কারা – এই মুহূর্তে সামনে আনতে রাজি নয় গেরুয়া শিবির।

তবে, এই পাঁচটি পুরাসভার পাশাপাশি শাসকদলে চোরা টেনশন শুরু হয়েছে গাড়ুলিয়া পুরসভা নিয়েও – কেননা ওই পুরসভার চেয়ারপার্সনের নাম সুনীল সিং। যিনি নিজেই যোগ দিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরে। এদিকে, মুকুল রায়ের ‘অপারেশন-অর্জুনে’ কার্যত ছত্রভঙ্গ ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের ঘাসফুল শিবির। কেননা, মুকুল রায় দল ছাড়ার পর এই অঞ্চলের দায়িত্ব পড়েছিল দুই ‘বন্ধু’ বিধায়ক – ভাটপাড়ার অর্জুন সিং ও নৈহাটির পার্থ ভৌমিক। এদিকে অর্জুন সিং বিজেপিতে যাওয়ায় পার্থবাবু কতটা ‘নড়াচড়া’ করতে পারবেন সেই নিয়ে সন্দিহান স্থানীয় ঘাসফুল শিবিরের নেতারাই। এছাড়াও রয়েছেন, ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত – যিনি আবার মুকুল রায়ের আত্মীয়। পাশাপাশি, রয়েছেন বীজপুরের বিধায়ক স্বয়ং মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশু রায়। মুকুল-অর্জুনের বিরুদ্ধে আত্মীয়তা ভুলে এঁরা কতখানি আসরে সক্রিয় হতে পারবেন সেটাও দেখার বিষয়। সবমিলিয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা ‘অর্জুন-গুগলিতে’ নির্বাচনের আগেই কার্যত শাসকশিবিরকে বেসামাল করে দিলেন মুকুল রায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!