এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > জল্পনা বাড়িয়ে অধীর-গড়ে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে বোর্ড গঠন গেরুয়া শিবিরের

জল্পনা বাড়িয়ে অধীর-গড়ে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে বোর্ড গঠন গেরুয়া শিবিরের

কিছুদিন আগেই মুর্শিদাবাদে গিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির সাথে বিজেপির ভালো সখ্যতা হয়েছে বলে অধীর চৌধুরীকে কটাক্ষ করেছিলেন তৃনমূলের শুভেন্দু অধিকারী এবং ফিরহাদ হাকিমেরা। এবার তৃনমূলের সেই অভিযোগে সত্যি করে মুর্শিদাবাদে হাতে হাত রাখল বিজেপি এবং কংগ্রেস।

সূত্রের খবর, জেলার ফরাক্কা ব্লকের 12 আসনবিশিষ্ট বেওয়া 2 পঞ্চায়েতে এবার কংগ্রেস পাঁচ, বিজেপি তিন, তৃনমূল তিন এবং সিপিএম একটি আসন পায়। জানা যায়, বোর্ড গঠনের দিন বিজেপির তিনজনের মধ্যে একজন অনুপস্থিত থাকায় বাকি দুই বিজেপি সদস্য কংগ্রেসের সাথে হাত মিলিয়ে প্রধান হিসাবে কংগ্রেসির ছোটন নেহেরা এবং উপপ্রধান হিসাবে বিজেপির অনিতা মন্ডলকে নির্বাচিত করেন। যা নিয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে একযোগে কটাক্ষ করেছে শাসকদল।

এদিকে বেওয়া 2 তে যখন এইরকম অবস্থা ঠিক তখনই 15 আসনবিশিষ্ট বেওয়া গ্রামে পঞ্চায়েতে তৃনমূল ছটি, বিজেপি চারটি এবং কংগ্রেস পাঁচটি আসন দখল করলেও সম্প্রতি কংগ্রেসের তিনজন তৃনমূলে যোগ দিয়েছেন বলে খবর। কিন্তু কংগ্রেসের দাবি, তাঁদের কোনো সদস্যই দলবদল করেননি। এদিকে এই ঘটনায় অশান্তি ছড়ানোর আশঙ্কায় আগামী 29 আগষ্ট এই পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের কথা জানিয়েছেন বিডিও কেডি ভুটিয়া।

এদিকে এই মুর্শিদাবাদের নওদার তিনটি, ফারাক্কার পাঁচটি, সূতি 1 একটি, সাগরদিঘিতে ছটি, সামশেরগঞ্জে একটি এবং ভরতপুরে 1 এ তিনটির মধ্যে সবগুলো পঞ্চায়েতই নিজেদের দখলে রেখেছে তৃনমূল কংগ্রেস। তবে বেওয়া 2 তে কংগ্রেস এবং বিজেপির এহেন সমঝোতা নিয়ে তৃনমূলের ফরাক্কা বিধানসভার চেয়ারম্যান মহম্মদ মোস্তাফা বলেন, “গদির লোভেই এই সাম্প্রদায়িক শক্তির সাথে হাত মেলাল কংগ্রেস।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

নির্বাচনের আগেই বলেছিলাম যে বিজেপি এবং কংগ্রেস এক হয়েছে এবার তাই প্রমান হল বলে জানিয়েছেন জেলা তৃনমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র অশোক দাস। তবে তৃনমূলকে রুখতে স্থানীয় স্তরে এই জোট। আর তৃনমূলের মুখে নীতি, আদর্শের কথা মানায় না বলে পাল্টা শাসকদলকে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস বিধায়ক মইনুল হক এবং প্রদেশ কংগ্রেস মুখপাত্র জয়ন্ত দাস। সব মিলিয়ে শাসকের কথাকে সত্যি করে খাস অধীর গড়েই হাত শিবিরের হাতে হাত রাখল পদ্ম শিবির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!