এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > তৃণমূল-সিপিএম-কংগ্রেস সংঘর্ষে রণক্ষেত্র রায়গঞ্জ, চলল গুলি, কার্যালয় ভাঙচুর

তৃণমূল-সিপিএম-কংগ্রেস সংঘর্ষে রণক্ষেত্র রায়গঞ্জ, চলল গুলি, কার্যালয় ভাঙচুর

রায়গঞ্জের দক্ষিণ সোহারইয়ে তৃণমূলপ্রার্থীর কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানোয় বাধা দেওয়ায় গুলি চালানোর অভিযোগ উঠলো। অভিযোগের তীর কংগ্রেস ও সিপিএমের দিকে। রায়গঞ্জ থানায় দুই পক্ষই একে অন্যে বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। উল্লেখ্য দক্ষিণ সোহারইয়ে গ্রামপঞ্চায়েত স্তরে তৃণমূলের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে শম্পা বিশ্বাস।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

অন্যদিকে বিরোধী প্রার্থী হয়েছেন কাজলী বিশ্বাস সাহা। এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে রবিবার গভীর রাতে মেলা থেকে ফিরছিলেন শম্পাদেবীর দেওর জয়ন্ত বিশ্বাস। পথ আটকে তাঁকে মারধর করে স্থানীয় কংগ্রেস ও সিপিএম সমর্থকরা।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান শম্পাদেবী ও তাঁর স্বামী। শম্পা দেবী এই প্রসঙ্গে জানান আক্রমনকারীদের সোমবার সকালে কথা হবে জানিয়ে বারবার অনুরোধ করলেও তারা সে কথা শুনতে অসম্মত হয়। সেই সময় শম্পাদেবী ও তাঁর স্বামী আক্রান্ত জয়ন্তবাবুকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে যান। এরপর ঐ রাতেই শম্পাদেবীর বাড়ি বাঁশ, লাঠি নিয়ে হামলা করে একদল দুষ্কৃতী।বাড়ির সামনেই ছিল প্রার্থীর অস্থায়ী কার্যালয় আর সেখানে ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীরা পালানোর সময় তিন রাউন্ড গুলিও ছোঁড়ে বলেও অভিযোগ করেছেন শম্পাদেবী। অবশ্য বিরোধী প্রার্থী কাজলী বিশ্বাস সাহা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে জানালেন যে ,”তৃণমূল প্রার্থীর দেওর জয়ন্ত বিশ্বাস ও তার দলবলই গুলি চালায়। বিরোধীদের হয়ে প্রচার চালানোর জন্যই এই ঝামেলা। এলাকায় সন্ত্রাসের আবহ তৈরি করেছে তৃণমূল।” এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে এলাকার পুলিশ। গোটা বিষয়টি নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এলাকার স্থানীয় অধিবাসীদের।

Top
error: Content is protected !!