এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শুভেন্দু-গড়ে প্রবল হাতাহাতি তৃণমূল-বিজেপির, পুলিশ শুধুই নীরব দর্শক বলে অভিযোগ

শুভেন্দু-গড়ে প্রবল হাতাহাতি তৃণমূল-বিজেপির, পুলিশ শুধুই নীরব দর্শক বলে অভিযোগ

আসন্ন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এবার অপ্রীতিকর ঘটনার সাক্ষী রইলো পূর্ব মেদিনীপুর। অভিযোগ উঠেছে ঐ জেলার সমুদ্র তীরবর্তী এলাকায় বিজেপি কর্মীদের ওপরে মারধর করা হয়েছে। গেরুয়া শিবির দাবি করলো ঐ ঘটনায় রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের ভূমিকা রয়েছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এই ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার দীঘা থানায় অভিযোগ দায়ের করে বিজেপি । সেইসময় সেখানে শাসক দলের প্রতিনিধিরা উপস্থিত হয়ে থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ করে বলে অভিযোগ। এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা তপন মাইতি বললেন, ”আমাদের যে সমস্ত কর্মী প্রচারে নেমেছে, তাঁদের শাসকদলের প্রতিনিধিরা মারধর করেছে। আমরা আমাদের কর্মীদের দিঘা হাসপাতালে চিকিত্‍সা করিয়ে দিঘা থানায় আসি। তখন থানার সামনে শাসকদলের প্রায় ২০০-৩০০ জন হামলা চালাতে শুরু করে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন, এই ধরনের অশান্তি কেন হচ্ছে, সেদিকে যেন নজর দিন। বাংলায় মানুষকে শান্তিপূর্ণ ভাবে বাঁচার ব্যবস্থা করুন মুখ্যমন্ত্রী।” অপরপক্ষে তৃণমূল নেতৃত্ব বিজেপির আনা এই অভিযোগ অস্বীকার করে বললেন , ”বিজেপির কর্মীরা আমাদের কর্মীদের বস্তায় ভরে সমুদ্রের জলে ফেলে খুন করার হুমকি দিয়ে চলেছে। তারই প্রতিবাদ জানাতে আমরা থানায় এসেছিলাম। আমরা এলাকায় শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা করে চলেছি। কিন্তু বিজেপি নেতা-কর্মীরা অশান্তি সৃষ্টি করতে চাইছে। এটা আমরা কোনওভাবে মেনে নিতে পারব না। তাই এলাকার শান্তি বজায় রাখতে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছিলাম।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!