এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জল্পনা বাড়িয়ে সারদাকাণ্ডের প্রধান তদন্তকারীকে সরিয়ে দিল সিবিআই

জল্পনা বাড়িয়ে সারদাকাণ্ডের প্রধান তদন্তকারীকে সরিয়ে দিল সিবিআই

চলতি বছরে দেশের সাড়া জাগানো ব্যাঙ্ক জালিয়াতি মামলার মধ্যে অন্যতম হলো নীরব মোদী-মেহুল চোক্সীর ব্যাঙ্ক তছরূপ মামলা। এই মামলার তদন্ত ভার  কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (সিবিআই) এর ওপরে। সেই তদন্তকারী দলের প্রধান রাজীব সিংহকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো এক সরকারী সিদ্ধান্তে। প্রসঙ্গত মাত্র ৮ মাস আগেই  ব্যাঙ্ক নিরাপত্তা এবং জালিয়াতি দমন শাখা (বিএসএফসি)-র প্রধান হিসাবে দায়িত্বভার পেয়েছিলেন তিনি। ত্রিপুরা-মণিপুর ক্যাডারের ১৯৯৩ ব্যাচের এই আইপিএস অফিসার আড়াই হাজার কোটি টাকার সারদা চিটফান্ড কাণ্ডের তদন্তেরও মধ্যমণি ছিলেন। সম্পূর্ণ  তদন্তের সাফল্যের জন্যে তিনি রাষ্ট্রপতি পদকও পেয়েছেন। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে সিবিআই রাজীব সিংহকে ব্যাঙ্ক জালিয়াতি সংক্রান্ত তদন্তের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব দেয়। সেই পদাধিকার সূত্রে ১৩ হাজার ৫৮৭ কোটি টাকার পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জালিয়াতির তদন্তের দায়িত্ব ভার ও তাঁর ওপরে ন্যাস্ত হয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

সিবিআই ঐ মামলায় অভিযুক্ত নীরব মোদী এবং মেহুল চোক্সীর বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দিয়েছে।  সিবিআই আধিকারিকদের একাংশের ধারণা এখন বিচার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হওয়ার সময়ে রাজীব সিংহ’কে সরিয়ে দেওয়ার ফল গোটা মামলা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। যদিও সরকারী ভাবে সিবিআইয়ের দাবি রাজীব সিংহকে হোম ক্যাডারে ফিরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ এসেছে ত্রিপুরা সরকার থেকেই। যার ভিত্তিতেই ব্যাঙ্ক জালিয়াতি শাখার প্রধান পদের দায়িত্ব থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হলো। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে হোম ক্যাডারে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্যে নির্দিষ্ট সময় শেষ হওয়ার আগে এমন সিদ্ধান্ত কেনও ? জানা যাচ্ছে একই কারণে ত্রিপুরা সরকার থেকে অনুরোধ করার জন্যেই ঐ ক্যাডারের অন্য দুই অফিসার অনিশ প্রসাদ এবং কে গোপাল কৃষ্ণ রাওকেও নির্দিষ্ট সময়ের আগেই সিবিআই থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে। যদিও সিবিআই’এর  অন্য অংশের দাবি ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগের অধিবাসী রাজীব সিংহ বর্তমানে তাঁর ভাই সঞ্জীব সিংহের বিরুদ্ধে ছ’কোটি টাকার জালিয়াতি মামলার সিবিআই তদন্তকে ব্যক্তিগতভাবে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিলেন। অবশ্য এই অভিযোগকে সিবিআই’এর পক্ষ থেকে সমর্থন করা হয়নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!