এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শুরুতেই ‘সুপারহিট’ মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের ‘রূপশ্রী’ প্রকল্প, বিয়ের মরশুমে যুদ্ধকালীন তৎপরতা

শুরুতেই ‘সুপারহিট’ মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের ‘রূপশ্রী’ প্রকল্প, বিয়ের মরশুমে যুদ্ধকালীন তৎপরতা

রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র ঘোষণা করেছিলেন বছরে দেড় লক্ষ টাকার কম আয়, এমন পরিবারের ১৮ উত্তীর্ণ মেয়ের বিয়ের জন্য সরকাররে তরফ থেকে ২৫ হাজার টাকা অর্থসাহায্য করা হবে। পঞ্চায়েত নির্বাচনকে ঘিরে শত ব্যস্ততা থাকলেও মুখ্যমন্ত্রীর ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পের কাজকর্মে  প্রশাসনের তরফে কোনো গাফিলতি নেই। গত ১ লা এপ্রিল থেকে চালু হয়েছে ‘রূপশ্রী’ প্রকল্প।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

গত ১০ দিনে ওই প্রকল্পের আর্থিক সুবিধা পাওয়ার জন্য জমা পড়েছে সাড়ে চার হাজারের বেশি আবেদন। তার মধ্যে‌ প্রায় ৯০০ জনের অ্যাকাউন্টে সরকার টাকা জমা দিয়েছে। এই প্রসঙ্গে এক প্রশাসনিক কর্তা সংবাদমাধ্যমকে বললেন,”পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া নিয়ে ব্লক এবং মহকুমাশাসকের কার্যালয়গুলিতে ব্যস্ততা তুঙ্গে। কিন্তু অর্থ সাহায্যের জন্য আবেদনকারীদের অনেকেরই বৈশাখে বিয়ে হওয়ার কথা। হাতে সময় কম থাকায় দ্রুততার সঙ্গে আবেদনপত্রগুলি খতিয়ে দেখা এবং টাকা পাঠানোর কাজ করতে হচ্ছে।” রাজ্যের নারী ও শিশুকল্যাণমন্ত্রী শশী পাঁজা বললেন, ”এই প্রকল্প গরিব মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। বিশেষ করে পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদের মতো জেলাগুলি থেকে বহু আবেদনপত্র জমা পড়েছে।” এদিকে প্রশাসন সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযাই,  মঙ্গলবার পর্যন্ত শুধু মুর্শিদাবাদ জেলা থেকেই ৭৪৪টি আবেদনপত্র জমা পড়েছে ব্লক এবং মহকুমা কার্যালয়গুলিতে। এরমধ্যে ২৫৮টি আবেদনপত্র খতিয়ে দেখে ২২১ জনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করা হয়েছে। পুরুলিয়া থেকে জমা পড়েছে ৩৭৫টি আবেদনপত্র। তারমধ্যে ২৪৬ আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করা হয়েছে। এবং ১০ টি আবেদনপত্র বাতিল করা হয়েছে। জেলাগুলি থেকে ভালো সংখ্যক মানুষের এই প্রকল্পে সাড়া পাওয়া গেলেও , কলকাতা জেলায় এই প্রকল্প সেইরকম প্রভাব ফেলেনি বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষ সূত্রের খবর অনুসারে কলকাতা থেকে ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পে আবেদন জমা পড়েছে ৫৭টি। যারমধ্যে ৪৭টি আবেদনপত্র খতিয়ে দেখে ৫ জন আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করা হয়েছে। কলকাতার পার্শ্ববর্তী জেলাগুলির মধ্যে মালদহ, বাঁকুড়া, বীরভূম,এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে এই প্রকল্পে আবেদনপত্র জমা পড়েছে যথাক্রমে ৪৪১,৩১৯,২৪৩,২৪৩ টি।

Top
error: Content is protected !!