এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরোহিত ভাতার দাবিতে এবার রাস্তায় নামলেন কংগ্রেস বিধায়ক মিলটন রশিদ

পুরোহিত ভাতার দাবিতে এবার রাস্তায় নামলেন কংগ্রেস বিধায়ক মিলটন রশিদ

বিধানসভায় তিনিই প্রথম পুরোহিত ভাতার দাবি তুলেছিলেন বীরভূমের হাঁসন কেন্দ্রের কংগ্রেস বিধায়ক মিলটন রশিদ। আর এবার সেই পুরোহিতদের পশে আবার দাঁড়ালেন।এদিন তিনি গলায় পুরোহিত ভাতার প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে জেলা প্রশাসনের অফিসের সামনে হাঁটলেন।বললেন যাঁদের সামনে রেখে আমরা নমাজ় পড়ি। যাঁদের হাত ধরে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত আমাদের নানা ক্রিয়া চলে, সেই ব্রাহ্মণ পণ্ডিতদের নিচে বসিয়ে রাজনৈতিক পণ্ডিতরা বোলপুরে উপরে বসে রইলেন। এটা আমার কাছে দৃষ্টিকটূ মনে হয়েছে।পাশাপাশি তিনি আরো জানান যে তিনি থেমে থাকবেন না ১২ জানুয়ারি কলকাতার ধর্মতলায় সংখ্যালঘুদের নিয়ে বিবেকজয়ন্তী থেকে পুরোহিত ভাতা চালু এবং মৌলবি, মোয়াজ্জেম ভাতা বাড়ানোর দাবিতে সরব হবেন তিনি। একই সঙ্গে পুরোহিত ভাতার দাবি নিয়ে গঙ্গাসাগর মেলায় সাধু, সন্তদের কাছে হাজির হবেন।
প্রসঙ্গত গত সোমবার পুরোহিত সম্মেলন করে তৃণমূল। পুরোহিতরা ভেবেছিলেন তাদের ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হবে। কিন্তু আশাহত হয়েই ঘরে ফিরতে হয়েছে তাদের। এই নিয়ে রাশিদবাবু দাবি করেন মাতালরা মারা গেলে টাকা দিতে পারে সরকার। কিন্তু, পুরোহিত ভাতা চালু নিয়ে কোনও উত্তর দিতে পারে না। অথচ পুরোহিতদের নিয়ে সম্মেলন করতে হয় তৃণমূলকে। কিন্তু মোয়াজ্জেমদের ভাতা চালুর সময় সম্মেলন করতে হয়নি।পাশাপাশি তার দল নয় এই পুরোহিত ভাতার জন্য লড়ছেন একা তিনি সেকথাও স্পষ্ট জানিয়ে দেন।তিনি বলেন দল নয়, মানুষ হিসেবে তৃণমূলের ব্রাহ্মণ সম্মেলনের অনেক আগে থেকে পুরোহিত ভাতার দাবিতে সরব হয়েছি আমি।বিজেপি থেকে তৃণমূল কেউই অবশ্য একে গুরুত্ব দিচ্ছে না তাদের মতে রাশিদবাবু নিজের প্রচার চালাচ্ছেন এইভাবে। এদিন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রতবাবু বলেন এটা প্রচার পাওয়ার কৌশল।বোলপুরে ব্রাহ্মণ সম্মেলন দেখে অনেকের মাথা ঘুরে গেছে। পরবর্তীতে রামপুরহাটে সংখ্যালঘু সম্মেলন হবে। একইভাবে তপশিলি জাতি, আদিবাসী ভাই বোনদের নিয়ে সম্মেলনও করবে দল। এই সম্মেলন দেখে অনেকেই তাঁদের নিয়ে রাজনীতি করতে চাইছে।
অন্যদিকে প্রায় তাঁকে সমর্থন করে বিজেপি জেলা সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন যে ভোট পেতে এরাই কেউ হিজাব পরেছে। এখন হিন্দু সেজে সমাজকে জাতিগতভাবে ভাগ করার চেষ্টা করছে।যদিও ব্রাহ্মণ পুরোহিতদের ভাতার দাবি নিয়ে গত নভেম্বর থেকেই সরব হয়েছেন রাশিদবাবু। তিনিই প্রথম বিধানসভায় পুরোহিত ভাতার দাবি তোলেন।আর সেই মতো গত ২২ নভেম্বর বিধানসভার অধ্যক্ষর অনুমোদন নিয়ে সেই আবেদন পাঠানো হয় অর্থ দপ্তরে। যদিও এই নিয়ে কোনো জবাব তিনি পাননি বলে জানান।কার বক্তব্য ঠিক কার ভুল তা জানা নেই কিন্তু রাশিদবাবুর পাশে পুরোহিতসামাজ দাঁড়াবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিকমহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!