এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতের মুখে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের জন্য বড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর

পঞ্চায়েতের মুখে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের জন্য বড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর

Priyo Bandhu Media

মঙ্গলবার শিক্ষাদফতর সূত্র থেকে জানা যায় আগামী ৩১ শে ডিসেম্বর অব্দি কম্পিউটার শিক্ষকদের চাকরির মেয়াদ বাড়ানো হল।এটি এইসব শিক্ষকদের কাছে অবশ্যই বড় খুশির খবর।তবে পঞ্চায়েত ভোটের আগেই কেন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হল তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে বিরোধী মহলে।শাসকদল নিজেদের ভোটব্যাংক বাঁচানোর চেষ্টা করছ,এমনটাই অভিযোগ করছেন তাঁরা।
২০০৩ সালে মোট সাড়ে ছয় হাজার কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছিলো দফায় দফায় আইসিটি@কুল প্রকল্পের অধীনে পাঁচ বছরের জন্যে।তাঁদের বেতন ছিল মাত্র ৪,৫০০ টাকা।বহুদিন তাঁরা বেতন বৃদ্ধির দাবি করেছেন এই প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট সংস্থার কাছ।কিন্তু এই দাবি পূরণের আগেই তাঁদের কাছে নোটিস আসে যে তাঁদের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে।যার ফলে কর্মহীনতায় ভুগছিলো প্রায় ৮০০ জন চুক্তিভিত্তিক কম্পিউটার শিক্ষক।এরপরই সংগঠনের সদস্যরা বাঁকুড়ায়য় বিক্ষোভ কর্মসূচি গ্রহণ করে। তার ফলে তাদের চুক্তির মেয়াদ একমাস বাড়িয়ে করা হয় গত ৩১ শে মার্চ অব্দি।তার প্রতিবাদ করেন তাঁরা ২২ শে মার্চ থেকে একটানা অনশন কর্মসূচি গ্রহণ করে।কিন্তু তাতেও প্রশাসনের ঘুম না ভাঙলে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর বাড়ির সামনে বিক্ষোভে সামিল হন ১২০০ চুক্তিভিত্তিক কম্পিউটার শিক্ষক গত ১৪ ই এপ্রিল।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তাঁদের দাবি ছিল অবিলম্বে তাঁদের কাজ ফিরিয়ে দিতে হবে।এর পাশাপাশি দাবি তোলা হয়েছিলো ৬০ বছর অব্দি কাজের নিশ্চয়তা এবং প্রকল্পকে রাজ্যসরকারের আওতাধীন রাখার প্রতিশ্রুতি।এর পরিপ্রেক্ষিতে পার্থবাবু ১৭ ই এপ্রিল সদর্থক কিছু পদক্ষেপ নেবেন বলে আশ্বাস দিলে তাঁরা বিক্ষোণ তুলে নেন।এবংঘোষণা করেন, ২০১৮ সালের ৩১ শে ডিসেম্বর অব্দি তাঁদের চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হলো।
তবে ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল কম্পিউটার টিচারস্ এসোসিয়েশনের সদস্য বিট্ট নন্দী জানিয়েছেন যে প্রাথমিকভাবে এই সিদ্ধান্তে তাঁরা খুশি হলেও,অন্য দাবি পূরণের জন্য তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।তাঁর কথায়-“মঙ্গলবার শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করার পর উনি জানান চুক্তিবদ্ধ কম্পিউটার শিক্ষকদের মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।”এই বিষয় নিয়ে তাঁরা শিক্ষা দফতরের এক আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁর সাথে কথা বলার পর বিট্টবাবু জানান যে,তাঁদের চুক্তির মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর অব্দি বাড়ানো হয়েছে এবং পঞ্চায়েত ভোট মিটলে অন্য দাবিগুলো বিবেচনা করে দেখা হবে।তাহলে কি আন্দোলন তুলে নেবেন তাঁরা? এ উত্তর দিতে গিয়ে তিনি জানান,” কাল আমাদের পুরুলিয়ার অনশন তুলে নেওয়া হবে।কিন্তু অন্য দাবিগুলি পূরণের জন্য আমরা টানা আন্দোলন চালিয়ে যাব।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!