এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুকুটে নতুন পালক, দেশের মধ্যে সেরা হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত

মুকুটে নতুন পালক, দেশের মধ্যে সেরা হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত

দেশের মশ্যে সেরা গ্রাম পঞ্চায়েতের খেতাব পেলো পশ্চিমবঙ্গ। রাজ্য এবং গ্রাম পঞ্চায়েতে উন্নয়নমূলক পরিকল্পনা সফলভাবে রূপায়ণের বিচারে দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমা ব্লকের দিগম্বরপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রথম হলো । কর্নাটক এবং সিকিমকে পিছনে ফেলে প্রথম হওয়া দিগম্বরপুরকে পুরস্কার হিসেবে ২০ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। কদিন আগেই কেন্দ্রের পঞ্চায়েতি রাজ মন্ত্রক রাজ্য সরকারকে এই প্রথম হওয়ার খবর চিঠি দিয়ে জানিয়েছে । এই প্রতিযোগীতা হয় কোনো এক অর্থবর্ষে এক একটি গ্রাম পঞ্চায়েত তার সার্বিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কী ভাবে কাজ করেছে তার উপর ভিত্তি করে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এই প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণের জন্যে পাঁচটি এগিয়ে থাকা পঞ্চায়েতের নাম পাঠানো হয়েছিলো । এই প্রতিযোগীতায় কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষিত তিনটি পরস্কার বরাদ্দ হয়েছিলো। মোট ৭ টি পঞ্চায়েতের মধ্যে জাতীয় স্তরে সেরা হয় দিগম্বরপুর। এছাড়া বর্ধমান, বীরভূম এবং পুরুলিয়ার বেশ কয়েকটি গ্রাম পঞ্চায়েত বিশেষ পুরস্কার পেয়েছে। পঞ্চায়েতের এই নজিরবিহীন বিহীন সাফল্যের পরে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বললেন, ”দেশে মোট আড়াই লক্ষ পঞ্চায়েত রয়েছে। তার মধ্যে ১ হাজার পঞ্চায়েতকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। সেই ১ হাজার পঞ্চায়েতের কাজকর্ম দেখেছে কেন্দ্র। আমরা তার মধ্যে প্রথম হয়েছি।এটা অবশ্যই আমাদের কাছে গর্বের বিষয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যও এটা গর্বের বিষয়। কারণ, মুখ্যমন্ত্রী পঞ্চায়েতের কাজে বিশেষ গুরুত্ব দেন। সব সময় আমাদের উৎসাহিত করেন।” বিভিন্ন ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যকে কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চিত করার বিষয়ে সুব্রত বাবু এদিন বললেন, ”বিভিন্ন বিষয়েই বঞ্চনা করে। বার্ধক্য ভাতা, বিধবা ভাতা, বিভিন্ন উন্নয়নমূলক ও সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্প খাতে টাকা অনেক কমিয়ে দিয়েছে। কিন্তু, আমরা এমন একটা পদ্ধতি এখানে তৈরি করে ফেলেছি, এমন একটা পদ্ধতিতে আমরা কাজ করি, যে সব প্রতিকূলতা কাটিয়ে দেশের মধ্যে এক নম্বর হতে পেরেছি।”

Top
error: Content is protected !!