এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > সাংসদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ, জল্পনা বাড়িয়ে নবান্নে আদিবাসী সমাজের সঙ্গে ‘বিশেষ বৈঠকে’ মুখ্যমন্ত্রী

সাংসদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ, জল্পনা বাড়িয়ে নবান্নে আদিবাসী সমাজের সঙ্গে ‘বিশেষ বৈঠকে’ মুখ্যমন্ত্রী

সাংসদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ, নবান্নে ডেকে আদিবাসী সমাজের সঙ্গে ‘বিশেষ বৈঠকে’ বসলেন মুখ্যমন্ত্রী। আদিবাসীদের ক্ষোভের আঁচ পেয়ে মুখ্যমত্রী এদিন আদিবাসী সংগঠন ‘ভারত জাকাত মাঝি পারগানা মহল’- এর নেতাদের নবান্নে ডেকে পাঠিয়ে ‘সৌজন্য বৈঠক’ করেন। তৃণমূল সূত্র থেকে জানা গেছে, এই বৈঠকের মধ্যস্থতা করেছেন ঝাড়গ্রামের তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের শীর্ষনেতা নিত্যানন্দ হেমব্রম, মুখপাত্র রবিন টুডু-সহ ৯ জন প্রতিনিধি। এদিন মুখ্যমন্ত্রী নবান্নে নিজের ঘরে প্রায় ঘন্টাখানেক বৈঠক করে। আদিবাসী নেতারা এদিন তাদের নানারকম দাবি উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। ভোট মেটার পর এই দাবি মুখ্যমন্ত্রী খতিয়ে দেখবেন বলে আশ্বাস দেন। এদিন নিত্যানন্দবাবু জানান, ”সাঁওতালি ভাষায় শিক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা ও দাবিগুলির বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছি।” অজিতবাবুর কথায়, “আদিবাসী নেতারা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে খুব খুশি। মুখ্যমন্ত্রী এদিন আদিবাসী নেতাদের কাছ থেকে সাঁওতালি ভাষাও শেখেন।”

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

প্রসঙ্গত কয়েকদিন আগে,একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রতিনিধিত্ব করতে জেনিভায় গিয়েছিলেন সংসদ উমা সোরেন।সেখানে গিয়েই উমাদেবী আদিবাসীদের ‘কুর্মি’ সম্প্রদায়ভুক্ত বলে মন্তব্য করেছিলেন। এদিকে আদিবাসীদের মনে করেছিলেন যে তাদের সংস্কৃতি ও কৃষ্টিকে আন্তর্জাতিক স্তরে তুলে করবেন কিন্তু তা না করে ‘কুর্মি’ বলায় তাঁরা আপনানিত বোধ করেছিলেন ও আহত হয়েচিলেন বলে অভিযোগ ছিল আদিবাসীদের।আর এর প্রতিবাদে আদিবাসীদের সংগঠন ‘ভারত জাকাত মাঝি পারগানা মহল’ এর তরফ থেকে মিছিল করা হয়েছিল ও তারপর সাংসদের কুশপুতুল পোড়ানো হয়েছিল।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!