এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > বিদেশে ফেরার আর্থিক অপরাধীদের নিয়ে বেনজির সিদ্ধান্তের পথে কেন্দ্র

বিদেশে ফেরার আর্থিক অপরাধীদের নিয়ে বেনজির সিদ্ধান্তের পথে কেন্দ্র

লোকসভা ভোটকে নজরে রেখেই কেন্দ্র সরকার মার্চ মাসে ‘ফেরার আর্থিক অপরাধী বিল বা ফিউজিটিভ ইকনমিক অফন্ডার্স বিল পেশ করেছিল বিদেশে ফেরার আর্থিক অপরাধীদের সম্পত্তি বাজেআপ্ত করতে।কেন্দ্র এই পদক্ষেপ নিয়েছে ললিত মোদী,বিজয় মাল্য এবং সম্প্রতি বিদেশের ফেরার নীরব মোদিকে দেখে।সংসদ না চলায় তা পাশ করার সম্ভব হয়নি বিলটি তবে কেন্দ্র যে পাওয়া টাকা উদ্ধারে কতোটা ইচ্ছুক তা বোঝাতে অধ্যাদেশ আনলো। আগামী অধিবেশনে ফের বিলটি পাশ করানোর চেষ্টা করবে কেন্দ্র সরকার।এই অধ্যাদেশে বলা হয়েছে,আর্থিক প্রতারনার মামলায় অভিযুক্তদের বিদেশে পালিয়ে গেলেলে তাঁদের যাবতীয় সম্পত্তি অধিকার করা হবে।এমনকি,বিদেশে থাকা সম্পত্তিও বাজেয়াপ্ত করার অধিকার বিলে রয়েছে।সরকার বলছে যে এই বিধানের ফলে পাওনা টাকার বেশীরভাগটাই ফেরত পাওয়া সম্ভব হবে।এবং এর ফলে ফেরার অপরাধীদের দেশে ফিরে আসার চাপও বাড়বে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তবে এ ব্যাপারে বিরোধীরা টানলো অন্যসুর।তাঁদের বক্তব্য হল,লোকসভা নির্বাচন এগিয়ে আসার দরুণ মুখরক্ষা করতেই নাকি মোদী সরকারের এমন সিদ্ধান্ত।যেভাবে একের পর এক ঋণখেলাপি বিদেশে আশ্রয় নিচ্ছেন তাতে প্রশ্নচিহ্নের সামনে দাঁড়াতে হচ্ছে মোদীসরকারকে।বিজেপি বুঝতে পারছে ভোট প্রচারে বেরোলে তাঁদের বিরোধীদের জবাব দিতে হবে,ক্ষোভের সম্মুখীনও হতে পারেন তাঁরা।তাই চটজলদি করে এই বিধান করেছেন তাঁরা যাতে প্রচারের সময় অন্তত এটাকেই ঢাল হিসাবে ব্যবহার করে বলা যে আগের সরকারের আমলে এই নিয়মটি ছিল না বলেই বিজয় মাল্য বা নীরর মোদীকে দেশে ফরাতে বর্তমান কেন্দ্রর সরকারের সমস্যা হচ্ছে।মোদীসরকারের আমলেই এই সঠিক বিধানটি তৈরি করা হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!