এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > স্ত্রীর কাছে ‘আগন্তুক’ পাঠিয়ে নতুন করে বিতর্ক বাড়িয়ে দিলেন মেয়র শোভন চ্যাটার্জি

স্ত্রীর কাছে ‘আগন্তুক’ পাঠিয়ে নতুন করে বিতর্ক বাড়িয়ে দিলেন মেয়র শোভন চ্যাটার্জি

কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বেহালার পর্ণশ্রীর মহারানি ইন্দিরা দত্ত রোডের বাড়ির নিরাপত্তার জন্যে এবার নিয়োগ হলো মহিলা বাউন্সার। মেয়রের বাড়ির নিরাপত্তার প্রয়োজনে এবং বাড়িতে আগত সকল ব্যক্তির নাম খাতায় নথিভুক্ত রাখার জন্যেই এই বাউন্সার নিয়োগ বলে জানা গেছে। সকাল সকাল বাড়িতে কালো পোশাকে থাকা মহিলা বাউন্সার দেখে ভয়নক ক্ষুদ্ধ মেয়র পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়। তিনি এই বিষয়ে পর্ণশ্রী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন রত্না দেবী স্পষ্টতই জানালেন মেয়রের তরফে ঐ বাড়িতে কোনো অতিথি এলে হাজিরা খাতায় নাম নথিভুক্ত হবে ঠিকই কিন্তু তিনি বা তাঁর পরিবারের কেউ ঐ বাড়িতে আসলে নাম নথিভুক্ত হবেনা। এদিন মেয়রপত্নী ঐ বাড়িতে উপস্থিত হয়ে হাজিরা খাতায় নাম নথিভুক্ত না করেই ভেতরে প্রবেশ করতে চাইলে ঐ মহিলা বাউন্সার সরাসরি মেয়রকে ফোন করে ফোনটি রত্না দেবী’কে ধরিয়ে দেন। এদিকে স্ত্রী’র কন্ঠ শুনেই মেয়র ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। ক্ষুদ্ধ রত্না দেবী অবশ্য বললেন বিষয়টি  নিয়ে তিনি আদালত অবধি যাবেন। উল্লেখ্য সম্প্রতি পর্ণশ্রী থানায় মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় স্ত্রী রত্না দেবীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। অভিযোগ ছিলো মেয়রের পর্ণশ্রীর মহারানি ইন্দিরা দত্ত রোডের পৈতৃক বাসভবনে ঢোকার জন্যে নিরাপত্তারক্ষীর কাছে থাকা হাজিরা খাতায় নাম নথিভুক্ত করতে রত্না দেবী বাধা দিয়েছিলেন। তাই এবার পুরুষ নিরাপত্তারক্ষী সরিয়ে মহিলা বাউন্সার নিয়োগ। মেয়রের অভিযোগ পৈতৃক এই বাসভবনে তাঁর বহু সম্পত্তি রয়েছে যার মধ্যে রয়েছে মামলার নথিও। স্ত্রী রত্না দেবী সেইসব কাগজপত্র বাজেয়াপ্ত করার চেষ্টা করার চেষ্টা করছেন বলে মেয়র অভিযোগ করলেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!