এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বাড়িয়ে তৃণমূলকে সমস্যায় ফেলছেন মন্ত্রীরাই, বলছে মুখ্যমন্ত্রীর গোয়েন্দা রিপোর্ট

গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বাড়িয়ে তৃণমূলকে সমস্যায় ফেলছেন মন্ত্রীরাই, বলছে মুখ্যমন্ত্রীর গোয়েন্দা রিপোর্ট

আসন্ন ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে  রাজ্য জুড়ে হয়ে চলা নানা স্মরণীয় ঘটনার সাক্ষী পশ্চিমবঙ্গবাসী। এরমধ্যে অবশ্যই একটি নজরকারা ঘটনা হলো নির্দিষ্ট সংখ্যক আসনে বিশাল সংখ্যক মানুষের মনোনয়নপত্র পেশ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং এই ঘটনায় বিস্মিত।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

যদিও তিনি এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন সমস্ত বিষয়টা তিনি নির্বাচনের আগেই একবার যাচাই করে নেবেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের বাস্তবায়নের জন্যে নেওয়া কোনও উদ্যোগের কথা এখনও জানা যায় নি।তৃণমূলের একাংশ দাবি করছেন যে বহু জায়গায় দলীয় বিক্ষুদ্ধ সদস্যরাই নিজেদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে চাইছেন না । আর এই বিক্ষুদ্ধ দলীয় কর্মীদের আড়ালে থেকে সমর্থন করে চলেছেন শাসকদলের মন্ত্রী সভারই কয়েকজন মন্ত্রী।এমনটাই নাকি গোয়েন্দা দফতরের রিপোর্টে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া এই মন্ত্রীরা বিভিন্ন জেলায় নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করতে তাঁদের পছন্দের দলীয় কর্মীদের প্রার্থী মনোনীত করতে চাইছেন। এরফলে জেলা নেতৃত্বের মনোনীত প্রার্থী এবং মন্ত্রীর পছন্দের দলীয় সদস্য দুই এ মিলিয়ে আসন সংখ্যার থেকে বেশি বিরাট অঙ্কের মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে।তবে এই ঘটনা নিয়ে এখনো মুখ খোলেনি তৃণমূল। তৃণমূলের আর একাংশের দাবি যে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। বিরোধীরা বিভ্রান্তি ছড়াতে এই অপপ্রচার চালাচ্ছে। তবে রাজনৈতিকমহল মনে করছে মনে করছেন এই ঘটনায় দলের প্রতি সাধারণ মানুষের এক বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরী হচ্ছে। এছাড়াও আসন্ন নির্বাচনের অল্প দিন আগেই কয়েকটি জেলার  শীর্ষ নেতৃত্বের দলত্যাগের ঘটনা রয়েছে। আর যদি এই ঘটনা সত্যি হয় তবে তৃণমূলের অস্বস্তি বাড়লো বই কমল না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!