এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > ছাড় পেলেন না সরকারি কর্মীও, বিরোধী ভেবে মার তৃণমূলের

ছাড় পেলেন না সরকারি কর্মীও, বিরোধী ভেবে মার তৃণমূলের

ছাড় পেলেন না সরকারি কর্মীও, বিরোধী ভেবে মার তৃণমূলের। বিরোধী প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিতে এসেছে ভেবে DVC-র সেচ দপ্তরের কর্মী দেবাশিস মুখার্জি -কে মারধর করা হলো। জানা গেছে, দেবাশিসবাবু হলেন ফার্স্ট পোলিং অফিসার। সোমবার নির্বাচন কমিশনের আধিকারিক ঘোষণা করেছিলেন যে আজ মঙ্গলবারও মনোনয়ন জমা দেওয়া হবে। আজ সকালে যদিও সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়। কিন্তু সেই ঘোষণার আগেই বিরোধীদের আটকাতে তৎপর হয়ে বর্ধমানের কার্জন গেট তৃণমূলের কর্মীরা দখল করে বলে অভিযোগ। ওই সময় দেবাশিসবাবু ওই রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। তৃণমূলের নেতারা নাকি তখন তাঁর পথ আটকে তাঁর পরিচয় জানতে চায়। তবে পরিচয়পত্র দেখানোর আগেই বিরোধী প্রার্থী মনে করে তাঁকে চর ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় তাঁর হাতে ও মাথায় চোট লাগে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

খবর পেয়ে অন্য সরকারি আধিকারিকরা ঘটনাস্থানে এসে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের বুঝিয়ে প্রমান দেখিয়ে তাঁকে উদ্ধার করেন।এই নিয়ে দেবাশীষবাবু বলেন,”অফিসে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ পথ আটকে একদল ছেলে লাঠি দিয়ে আমাকে মারতে শুরু করে। আমি আমার পরিচয়পত্র বের করার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু তারা সুযোগই দেয়নি।” এদিকে এই ঘটনায় নতুন করে আবার সরকারি কর্মীদের নিরাপত্তার দাবিতে আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি তুলেছেন বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদ। এই সংগঠনের আহ্বায়ক দেবাশিস শীল এই নিয়ে জানান, “আক্রান্ত দেবাশীষবাবুর পশে আমরা আছি। তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন এটাই ঈশ্বরের কাছে কামনা করি”। পাশাপাশি তিনি আরও জানান যে, “এখনো ভোট শুরু হয়নি তার মধ্যেই এইভাবে আক্রান্ত হতে হচ্ছে সাধারণ সরকারি কর্মচারীদের। তাই আমরা সমস্ত রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের, যাঁরা এই ভোট প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে বাধ্য হবেন, তাঁদের সুরক্ষার দাবিতে কেন্দ্রিয়বাহিনীর দাবি আরো জোরালো করবো। আগামী শুক্রবার মাননীয় আদালতের কাছে নতুন করে দাবী জানানোর সময় আমরা এই ঘটনাকে উল্লেখ করব যাতে আমাদের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর দাবী জোরালো হয়। আর আমরা চাই রঙ-দল ভুলে সমস্ত সরকারি কর্মচারীরা এই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমাদের সাথে এই লড়াইয়ে পশে থাকুন। এটা কোনো রাজনৈতিক লড়াই নয়, এটা সাধারণ মানুষের – সাধারণ কর্মচারীদের নিজেদের প্রাণ বাঁচানোর লড়াই”।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!