এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নিরাপত্তার দাবীতে সরকারি কর্মীদের বিক্ষোভ আসলে ‘বাম বিক্ষোভ’ মত নবান্নের

নিরাপত্তার দাবীতে সরকারি কর্মীদের বিক্ষোভ আসলে ‘বাম বিক্ষোভ’ মত নবান্নের

পোলিং অফিসার রাজকুমার রায়ের অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে প্রতিবাদে সরব হয়ে ওঠে ভোটের দায়িত্বে থাকা সরকারি কর্মীরা। রাজকুমার বাবুর পরিবার এবং সহকর্মীদের দাবী তাকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। তারই প্রতিবাদ জানাতে এদিন সকাল থেকেই রায়গঞ্জেরর ঘড়ি মোড়ে বিক্ষোভে সামিল হন ভোটের ডিউটি করা সরকারি কর্মীরা। তাঁদের দাবী ছিল, পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকলে বৃহস্পতিবার ভোটগণনায় তাঁরা যাবেন না। তাঁদের ওখান থেকে সরানোর চেষ্টায় পুলিশকর্মীরা ব্যর্থ হলে দায়িত্ব বর্তায় এসিডিও রায়গঞ্জ টি এন শেরপার উপর।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

জানা গেছে, ঘটনাস্থল থেকে সরকারী কর্মীদের হটাতে এসডিও গেলে তাকে বেধরক মারধোর করে বিক্ষুব্ধ কর্মীরা। জুতো ছোঁড়া থেকে শুরু করে তাঁর গায়ে জল ঢালা এরকম নানান অপমানজনক কাজ তাঁরা করতে পিছপা হননা। এসডিও টিএন শেরপা জানান যে তিনি শুধু কথা বলতে গেছিলেন সরকারি কর্মীদের সাথে।

উক্ত ঘটনায় মুখ খুলেছে নবান্নশিবির। এসডিও রায়গঞ্জকে নিগ্রহের ঘটনায় কোনো ভোটকর্মী জড়িত নন। যাঁরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন তাঁরা নাকি সবাই সক্রিয় বামপন্থী। বিক্ষোভকারীরা এবিটিএ-র সদস্য। নির্দিষ্ট উদ্দশ্য নিয়েই করা হয়েছে ঝামেলা। এমটাই বক্তব্য রাজসরকারের তরফের। তবে বিরোধীপক্ষ আবার তীব্র সমালোচনা করেছে এসডিও নিগ্রহের ঘটনার। তবে তাঁরা সরকারি কর্মীদের দাবীটাকেও অযৌক্তিক বলে দাবী করেননি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!