এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রাজ্যের গণতন্ত্র নিয়ে রাজ্য সরকারকে চরম অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন অমিত শাহের দূত

রাজ্যের গণতন্ত্র নিয়ে রাজ্য সরকারকে চরম অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন অমিত শাহের দূত

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র রাষ্ট্রমন্ত্রী হংসরাজ গঙ্গারাম আহির এদিন রাজ্যে এসেছিলেন। আর এসে বিজেপির রাজ্য দফতরে একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। সেখানে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে একরাশ অভিযোগ করেন তিনি। তিনি এদিন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করে বলেন ,
“পঞ্চায়েত ভোটে যেভাবে হিংসা হয়েছে মিডিয়ার মাধ্যমে তা জেনেছি। মনোনয়ন জমা দিতে দেওয়া হয়নি। এ থেকে প্রমাণিত আইনশৃঙ্খলায় গন্ডগোল আছে।”  ক্ষোভ প্রকাশ করলেন শাসকদলের বিরুদ্ধে পঞ্চায়েত নির্বাচন পর্ব থেকে নজরকাড়া সন্ত্রাসের ছবি সামনে আসায়। জানালেন যে বঙ্গের বর্তমান দুর্নীতিগ্রস্থ আইন শৃঙ্খলার অবনমন দেখে অসন্তুুষ্ট তিনি। নির্বাচনের নামে যে গণতন্ত্রের হত্যালীলা চলেছে এ রাজ্যে তাঁর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সুর চড়া করে তিনি আরো জানান যে  ভোটে হিংসার নজির প্রকাশ্যে এসে গনতন্ত্রকেই অপমান করেছে। এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব নিতে হবে বর্তমান আইএএস,আইপিএস অফিসারদের। আর আইন শৃঙ্খলা কে ঠিকভাবে চালানো রাজ্যসরকারের দায়িত্ব। পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে ঘটা অবাধ হিংসার রিপোর্ট গেছে প্রধানমন্ত্রীর দরবারে। বিষয় খতিয়ে দেখার কার্যভার নিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। দরকার হলে তিনি পুরুলিয়া যাবেন সম্প্রতি বিজেপি নেতাদের রহস্যজনকভাবে খুন হওয়ার বিষয়টির তদারক করতে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তবে প্রশ্ন তোলা হয়েছে পঞ্চায়েত নির্বাচনের এর উপর ভিত্তি করা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রিপোর্টসংক্রান্ত তথ্যে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা প্রসঙ্গে শুধু পার্টির নেতাদের মতামত নিচ্ছেন কেন? রিপোর্ট সংক্রান্ত বিষয়ে রাজ্য সরকারের সাথে কথা হয়েছে কিনা তা জানতে চাওয়া হলে জবাবে তিনি জানান যে তিনি একটি সরকারি অনুষ্ঠানে এসেছিলেন যেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য পুলিশের আইজিরা। এছাড়াও তিনি পার্টি অফিসে গিয়েছিলেন সংগঠনের মুখ্যমন্ত্রী,প্রধানমন্ত্রী তৈরি করে। তিনি শুধুমাত্র সংগঠনের লোক হিসাবেই পার্টি অফিসে গেছিলেন বলেই সাফাই দেন। তবে জানা যাচ্ছে যে, এদিনের পর রাজ্য বিজেপি পার্টির তরফ থেকে আট জন আইপিএসের বিরুদ্ধে পঞ্চায়েত নির্বাচনে যথাযথ দায়িত্ব পালন না করার জন্য অভিযোগ জানানো হয়। তাঁদের জন্য কী আইনি পদক্ষেপ নেবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রদপ্তর সে নিয়ে এখনো প্রকাশ্য মন্তব্য করেননি হংসরাজ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!