এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিভ্রান্তিমূলক খবর ছড়ানোর অভিযোগে সিআইডি তদন্ত শুরু মহম্মদ সেলিমের পুত্রের বিরুদ্ধে

বিভ্রান্তিমূলক খবর ছড়ানোর অভিযোগে সিআইডি তদন্ত শুরু মহম্মদ সেলিমের পুত্রের বিরুদ্ধে

সোমবার রাজ্যে যখন পঞ্চায়েত নির্বাচন চলছে তখন সোস্যাল মিডিয়ায় দেশ তথা রাজ্যবাসীর মধ্যে এক অন্যরকম সক্রিয়তা লক্ষ্য করা গেলো। সেখানে মানুষ নির্বাচনকে উদ্দেশ্য করে নানা রকম মন্তব্য করতে থাকে । অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় বাস্তব ঘটনার সাথে সোস্যাল মিডিয়ায় মানুষের হলফ করা বক্তব্যের কোনো মিলই নেই। সেইরকমই একটি পোস্ট কে কেন্দ্র করে তদন্ত শুরু করলো রাজ্য সরকারের তদন্তকারী গোয়েন্দা সংস্থা  সিআইডি। জানা যাচ্ছে ফেসবুকে ঐ পোস্ট টি করেছেন রায়গঞ্জের সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের ছেলে রাসেল আজিজ। তাঁর বিরুদ্ধেই বিভ্রান্তিমূলক খবর ছড়িয়ে উত্তেজনা সৃষ্টির অভিযোগে মামলা রুজু করেছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা। এই প্রসঙ্গে সাংসদ মহম্মদ সেলিম বললেন ,”ভোটে এত খুন হল, সন্ত্রাস হল চারিদিকে। রাজ্য প্রশাসনের কোনও নজর নেই। সিআইডির সঙ্গে রাজ্য সরকারের যে ঐক্য রয়েছে, তা আরও একবার বোঝা গেল। এর বেশি বলার কিছু নেই।” স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন আসে যে কী লিখেছেন  রাসেল আজিজ ? জানা যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট পোস্টে তিনি লিখেছেন , “উত্তর দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলের গুন্ডাবাহিনীর গুলিতে একজন প্রিসাইডিং অফিসার ও একজন পোলিং অফিসার খুন হলেন।” কিন্তু আশ্চর্যে বিষয় হলো যাবতীয় সন্ত্রাস , অশান্তি এবং বেশিরভাগ অপ্রীতিকর ঘটনাই সংঘটিত হয়েছে দক্ষিণ বঙ্গে। দু একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা বাদ দিলে উত্তর বঙ্গে নির্বাচন পর্ব মোটামুটি শান্তিপূর্ণ এবং বিশেষ ঘটনা উত্তেজনা সম্বলিত ঘটনাপূর্ণ নয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তাই এদিন মহম্মদ সেলিমে পুত্রের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে প্রবল উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। যদিও বিষয়টি পরে বুঝতে পেরে তিনি সেটি মুছে দেন। কিন্তু ততক্ষণে বিষয় টি  সিআইডির গোচরে এসেছে । এদিকে প্রশাসন সূত্রে খোঁজখবর নিয়ে দেখা গিয়েছে উত্তর দিনাজপুরে প্রিসাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্ট খুন হওয়ার খবর গোটাটাই রটনা। এমনকি সেখানে কোনো সাময়িক উত্তেজনার কারণে কোনো সংঘর্ষের ঘটনা অবধি ঘটেনি। এখন স্বভাবিক ভাবেই সাংসদ পুত্রের ঐ পোস্ট করার পিছনে কী উদ্দেশ্য ছিলো তা নিয়ে তদন্ত শুরু করলো সিআইডি। রাসেল আজিজের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভ্রান্তি ছড়িয়ে উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা। অন্যদিকে ছেলের বিরুদ্ধে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তের নির্দেশে কার্যত অসন্তুষ্ট রায়গঞ্জের সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিম। এই প্রসঙ্গে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে তিনি বললেন, “ভোটে এত খুন হল, সন্ত্রাস হল চারিদিকে।রাজ্য প্রশাসনের কোনও নজর নেই। সিআইডির সঙ্গে রাজ্য সরকারের যে ঐক্য রয়েছে, তা আরও একবার বোঝা গেল। এর বেশি বলার কিছু নেই।”

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!