এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কমছে জনপ্রিয়তা, শীঘ্রই কি গদি যাবে দাপুটে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর?

কমছে জনপ্রিয়তা, শীঘ্রই কি গদি যাবে দাপুটে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর?

কমছে জনপ্রিয়তা, শীঘ্রই কি গদি যাবে দাপুটে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর? উঠছে প্রশ্ন। রাজস্থান রাজ্যের শাসন ক্ষমতা বিজেপির আয়ত্বে রাখতে গেলে অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়ার অপসারন করতে হবে এমনটাই দাবি জানালেন আদিবাসী নেতা কিড়োরিমল মিনা। এই প্রসঙ্গে মিনা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে নিজের ধারণার কথা স্পষ্টভাবেই ব্যাখ্যা করেন। এই নিয়ে তিনি যুক্তি দেখান যে রাজস্থান বিধানসভার ২০০টি আসনের মধ্যে ৪৯টি হচ্ছে সংরক্ষিত। ২০১৩ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এর মধ্যে ৪৫টি আসন বিজেপি জয়লাভ করেছিলো।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু আগামী লোকসভা নির্বাচনে সেইরকম কোনো সম্ভবনা নেই। কারণ বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর শাসনকালে এখন রাজ্যে আদিবাসীদের ওপর অত্যাচারের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে ৩১ শতাংশ এবং দলিতদের ক্ষেত্রে অত্যাচারের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে ২৭ শতাংশ।তাই রাজ্যের আদিবাসী ও দলিত অধিবাসীদের ভোট নিজেদের দখলে রাখতেই মুখ্যমন্ত্রীর অপসারন একান্ত কাম্য। এছাড়া তিনি আরোও জানালেন দলিত-আদিবাসীদের ওপর অত্যাচারের ঘটনায় অভিযুক্তদের শাস্তি প্রদানের ক্ষেত্রেও রাজ্যের প্রশাসন কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ ও গ্রহণ করছেনা। কিন্তু এই নিয়ে দোলাচলে পড়েছেন অমিত শাহ এবং মোদী। কেননা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজেকে পদচ্যুত করলে তাঁর অনুগামীরা একজোট হয়ে রাজ্যে চরম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে। যার জেরে দলের নির্বাচনে জয়লাভের সম্ভবনা ক্ষীণ হয়ে যাবে। এমত অবস্থায় রাজস্থানের রাজনৈতিক পরিবেশ বিচার করে নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ ধীরে চলো নীতি অবলম্বন করেছেন। এদিকে বিজেপি সূত্রের খবর অনুযায়ী দলে শীর্ষ নেতৃত্ব রাজ্য বিধানসভার প্রচারে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী রাজ্যবর্ধন রাঠোরকে কিছু গুরু দায়িত্ব দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন। সব দিক বিচার করে এখন রাজস্থানের আগামী মুখ্যমন্ত্রী পদ অলঙ্কৃত করার সম্ভবনা কার সে নিয়ে জোর জল্পনা চলছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!