এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জিতেও বামদের পিছনে বিজেপি, ঘাটতি পূরণে লক্ষ্যমাত্রা ২০১৯ এই

জিতেও বামদের পিছনে বিজেপি, ঘাটতি পূরণে লক্ষ্যমাত্রা ২০১৯ এই

ত্রিপুরার নির্বাচনে জিতেও বামেদের কাছ থেকে দুটি লোকসভা আসন কেড়ে নিতে বদ্ধপরিকর বিজেপি।লক্ষ্য ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন।বিজেপির সংগঠনের উওর পূর্বের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অজয় জমাওয়াল চারদিনের ত্রিপুরা সফরে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী সহ একাধিক নেতাদের সাথে কথা বলেন এবং  ক্যাডারদের বলেন লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি শুরু করতে।রাজ্যবিজেপির সহ সভাপতি সুবল ভৌমিকের মাধ্যমে জানা গেছে ত্রিপুরায় বামেদের থেকে দুটো আসন ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য জোর কদমে প্রয়াস চলছে।সংগঠন পরিবর্তনেরও খবর পাওয়া গেছে।বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রামমাধব খুব তাড়াতাড়ি ত্রিপুরা সফরে যাবেন এমনটাই  খবর পাওয়া গেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

গেরুয়াশিবিরের ৪২ হাজারেরও বেশি তৃণমূল পর্যায়ের পার্টি কর্মী,পৃষ্ট প্রমুখ অথবা পান্না প্রমুখ  বা পান্নস প্রভারীরা উল্লেখ্য ভূমিকা পালন করেন ১৮ ই ফেব্রুয়ারীর নির্বাচনে।আরএসএস এর পক্ষ থেকে একএকজনকে ৬০ জন  ভোটারদের উপর নজরদারি করতে হয়।এই পৃষ্ট প্রমুখদেরই উওরপ্রদেশ ও গুজরাতের বিধানসভা নির্বাচনে দারুণ ভূমিকা ছিল।বিজেপির প্রধান নেতা মৃণাল কান্তি দেব জানিয়েছেন,ত্রিপুরার ৩২১৪ টি ভোটকেন্দ্রের দিকে তাকিয়েই  বুথলেবেল কর্মী ও পৃষ্ট প্রমুখেরা নড়েচড়ে বসছেন।ইতিহাস বলছে বামপন্থীরা ১৯৯৬ সাল থেকে ত্রিপুরায় ৬ টি সংসদীয় নির্বাচনে দুটি আসনেই জয়ী হয়ে আসছে।এই বামেরাই ৬৪% শতাংশ ভোট পেয়েছিলো ২০১৪ সালের নির্বাচনে,বিজেপির ঝুলিতে ছিল ৫.৭% ভোট।তবে বিধানসভার ভোট কিন্তু অন্য ছবি দেখিয়েছে।সেখানে বামেরা পেয়েছিলো ৪৫%, বিজেপি পেয়েছিলো ৪৩% এবং তাদের সহযোগী আইপিএফটি এর কপালে জুটেছিলো ৭.৫ শতাংশ ভোট।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!