এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ভাঙড়ে বড় স্বস্তি আন্দোলনকারীদের, চুক্তি মেনে মামলা প্রত্যাহারের পথে রাজ্য-সরকার

ভাঙড়ে বড় স্বস্তি আন্দোলনকারীদের, চুক্তি মেনে মামলা প্রত্যাহারের পথে রাজ্য-সরকার

গত 2016 র নভেম্বর মাস থেকে এই চলতি বছরের আগষ্ট মাস পর্যন্ত ভাঙড়ের পাওয়ার গ্রীড বিরোধী আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা দায়ের হয়েছিল। এবার সেই সমস্ত মামলা প্রত্যাহার করার উদ্যোগ নিল প্রশাসন। সূত্রের খবর, গত শনিবার দক্ষিন 24 পরগনার নব প্রশাসনিক ভবনে ভাঙড়ের আন্দোলনকারীদের সাথে জেলা প্রশাসনের একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। আর সেই চুক্তিতেই এই মামলা প্রত্যাহারের ব্যাপারে স্পষ্ট কথা বলা আছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এদিনের এই চুক্তিপত্রে 10 টি ব্যাপারে দু পক্ষ সহমত প্রকাশ করেছে। দুটি 400 কেভি ও দুটি 200 কেভির লাইন পরিমার্জিত পরিকল্পনায় নিয়ে যাওয়াযও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমনকী ভারতীয় বিদ্যুৎ আইনের নিয়ম মেনে দুটি লাইনের মধ্যে দূরত্ব  মাটি থেকে স্থায়ী পরিকাঠামোর মাধ্যমে ঠিক করা হবে। জানা গেছে, রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থা, জমি রক্ষা কমিটি ও পাওয়ার গ্রীড কতৃপক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি সাব কমিটি তৈরি করার ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, জেলাশাসকের নেতৃত্বে থাকা পাওয়ার গ্রীড কো অর্ডিনেশন কমিটিই এই সাব কমিটির সমস্ত বিষয় দেখবে। তবে এই সাব ষ্টেশন তৈরির ক্ষেত্রে যদি কোনোরুপ সমস্যার সৃষ্টি হয় তবে তা সাব কমিটির নজরে আনা হবে। সম্মতিপত্রে নাগরিকদের উন্নয়ন কর্মসূচী গ্রহনেও বিস্তারিত কথা লেখা আছে। খামারআইট, মাছিডাঙা, পদ্মপুকুর, টোনা, কামারবাড়ি, বকুলতলা; ঢিবঢিবা, স্বরুপনগর, বগডোবা, গাজিপুর, শ্যামনগর, মুন্সিপাড়া সহ বেশ কটি গ্রামের বাসিন্দাকে ক্ষুদ্র উদ্যোগ তৈরিতে সাহায্য করারও আশ্বাস মিলেছে প্রশাসনের তরফে।

এছাড়াও এলাকার বেকার যুবক, যুবতীদের কর্মসংস্থান, রাস্তা,7 নিকাশি, আলো, বিদ্যালয় ইত্যদির উন্নতি, জমির ক্ষতিপূরন না পাওয়া ব্যাক্তিদের সরকারি পদ্ধতি মেনে তা মিটিয়ে দেওয়া সহ একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জানা গেছে, এদিনের এই চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন প্রশাসনের পক্ষে জেলার জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর, অতিরিক্ত জেলাশাসক মৃনাল রানো, পুলিশ সুপার অরিজিৎ সিনহা আর জমি কমিটির পক্ষে অলীক চক্রবর্তী, শর্মিষ্টা চৌধুরী সহ 50 জন আন্দোলনকারী।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!