এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বাংলায় আদিবাসী উন্নয়নের নামে কোটি-কোটি টাকা নয়-ছয়, সামনে এল বিস্ফোরক অভিযোগ

বাংলায় আদিবাসী উন্নয়নের নামে কোটি-কোটি টাকা নয়-ছয়, সামনে এল বিস্ফোরক অভিযোগ

পশ্চিমবঙ্গে আদিবাসী উন্নয়নের নামে চলছে ঘোর অরাজকতা। প্রতি বছর আদিবাসী উন্নয়ন খাতে কেন্দ্র থেকে অর্থ আসছে। আর সেই অর্থ অনায়াসেই চলে যাচ্ছে অন্যখাতে। শুধু কয়লা মন্ত্রকে নজর দিলেই চোখে আসবে কয়েক শ’কোটি টাকার কোনো হিসেবই নেই। অভিযোগ, গত ১৭ বছর ধরেই আদিবাসী উন্নয়নের অর্থ অন্যখাতে চলে যাচ্ছে। আশ্চর্যের কথা যে খাতে এই অর্থ যাচ্ছে সেখানে আলাদা করেই অর্থ বরাদ্দ করা হয়। এদিন কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে এই অভিযোগ প্রকাশ্যে আনলো আম আদমি পার্টি (আপ)।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

অভিযোগ কলকাতার দফতরগুলি থেকেই কয়লা মন্ত্রকে আদিবাসী উন্নয়নের অর্থ তছরূপের অধিকাংশ ক্রিয়াকলাপই পরিচালিত হচ্ছে। এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে  রাজ্যে আপ-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক সঞ্জয় বসু এই অর্থ কেলেঙ্কারির এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আনেন। তাঁদের অভিযোগের সপক্ষে প্রমান স্বরূপ কয়লা মন্ত্রকের একাধিক নথি এবং আরটিআই করে পাওয়া নথিও সংবাদমাধ্যমের হাতে তুলে দেন আপ এর রাজ্য প্রতিনিধি সঞ্জয় বসু। আপের অভিযোগ অনুয়ারী তছরূপ হওয়া অর্থ কেলেঙ্কারীতে স্থানীয় কয়লা মাফিয়া চক্রের পাশাপাশি এই রাজ্যের রাজনোইতিক দলগুলিরও সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে। এই তছরূপ কান্ডের চক্রের বিস্তার পশ্চিমবঙ্গ, ছত্তিশগঢ় থেকে শুরু করে অন্ধ্রপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, এমনকি সুদূর রাজস্থানে ও। আদিবাসী উন্নয়নে জন্যে কেন্দ্র বরাদ্দ অর্থ সঠিক ব্যয় না করার জন্যে সিএমপিডিআইএল, কোল ইন্ডিয়া, অফিস অফ কন্ট্রোলার কলকাতা, জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া এবং ইন্ডিয়ান ব্য়ুরো অফ মাইনসের কর্তব্যে গাফিলতির কথা ইঙ্গিত করছে আম আদমী পার্টি। তথ্যের অধিকার আইনে পাওয়া পরিসংখ্যান অনুয়ারী জানা যাচ্ছে কয়লা মন্ত্রক গত ৭ বছরে আদিবাসী উন্নয়নের ২০৫.১১ কোটি টাকা অন্য খাতে খরচ করে দিয়েছে। অভিযোগ, আদিবাসী উন্নয়নের অর্থ খনি ভরাটের কাজেই শেষ করে দেওয়া হচ্ছে। অথচ, এই অর্থ খনি এলাকায় থাকা আদিবাসীদের জীবনের মানোন্নয়নে ব্যবহারের জন্য দেওয়া হয়ে থাকে। এই অর্থ আদিবাসী এলাকায় স্কুল, রাস্তা , হাসপাতাল প্রভৃতি নির্মান এবং পরিচালনার জন্যে বরাদ্দ হয়ে থাকে। এইসব উন্নয়ন মূলক কাজে এতদিন বরাদ্দ অর্থের কিছুই ব্যয় হয়নি বলে জানাচ্ছে আপের সদস্য’রা। এই অভিযোগে গুরুত্ব না দেওয়া হলে অতি সত্বর তাঁরা পশ্চিমবঙ্গ থেকে শুরু করে রাজস্থান অবধি রাজ্য গুলিতে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকিও দিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!