এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুকুল রায়কে তীব্র কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জেনে নিন

মুকুল রায়কে তীব্র কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জেনে নিন

তৃণমূলে থাকার সময় কে সেকেন্ড ইন কমান্ড হবে, তা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম মুকুল রায়ের দ্বন্দ্ব প্রায় সকলেরই জানা। যার পরিপ্রেক্ষিতে শেষমেষ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করতে হয়েছিল রাজনীতির চাণক্য মুকুল রায়কে।

আর এরপরই তৃণমূলের ঘর ভেঙে একের পর এক জনপ্রতিনিধিদের বিজেপিতে যোগদান করাতে শুরু করেছিলেন সেই মুকুলবাবু। লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ভালো ফলাফলের পর সেই যোগদানের মাত্রা আরও বৃদ্ধি পেয়েছিল। উত্তর 24 পরগনার কাঁচরাপাড়া, হালিশহরের মত পৌরসভাগুলি তৃণমূলের দখলে থাকলেও সেখানকার কাউন্সিলররা বিজেপিতে নাম লেখানোয় এই মুকুল ম্যাজিকে চিন্তায় পড়েছিল শাসক দল।

তবে বর্তমানে সেই অবস্থার পরিবর্তন হতে শুরু করেছে। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া কাউন্সিলারেরা এখন ফের তৃণমূলে ফিরে আসতে শুরু করেছেন। আর এবার এই প্রসঙ্গেই এদিন নাম না করে সেই বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূল যুবর সর্বভারতীয় সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রসঙ্গত, 24 আসনবিশিষ্ট কাঁচরাপাড়া পৌরসভার 15 জন কাউন্সিলার বিজেপিতে যাওয়ায় এই পৌরসভা তৃণমূলের হাতছাড়া হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কিছুদিন আগেই সেখান থেকে 5 জন, আর এদিন আরও 9 জন তৃণমূলে ফিরে এসেছেন। ফলে এই কাঁচরাপাড়া পৌরসভা ফের তৃণমূলের দখলে চলে আসল।

এদিন এই প্রসঙ্গে দলে আসা কাউন্সিলরদের স্বাগত জানিয়ে তৃণমূল যুবর সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিজেপি নেতাদের কাছে নম্বর বাড়াতে ভয় দেখিয়ে এই কাউন্সিলরদের নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা সকলেই ফের তৃণমূলে ফিরে এলেন। দলবদলের জন্য যাকে চাণক্য বলা হচ্ছিল, দেখা গেল সেই চাণক্য আসলে মেড ইন চায়না।” কিন্তু কেন হঠাৎ এই কাউন্সিলররা কিছুদিনের জন্য তৃনমূল থেকে বিজেপিতে গিয়েছিলেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল যুবর সভাপতি বলেন, “লোকসভা ভোটের পর কয়েকদিন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা নির্বাচন কমিশনের আওতাধীন ছিল। আর সেই সুযোগ নিয়েই বিজেপি এই কাউন্সিলরদের দলে নিয়েছিল।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, সুযোগ পেয়ে বিজেপিতে যাওয়া কাউন্সিলরদের ফের তৃণমূলে ফিরিয়ে এনে নাম না করে মুকুল রায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে কাউন্সিলরদের তৃণমূলে ফিরে যাওয়া আসলে বিজেপিরই রণকৌশল বলে এদিন পাল্টা নিজের মত ব্যাখ্যা করেছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সব মিলিয়ে একবার সবুজ, আবার একবার গেরুয়াতে রীতিমতো বিপাকে কাঁচরাপাড়া, হালিশহর পৌরসভা।

Top
error: Content is protected !!