এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ২৫০ আসন নিয়ে ২০২১-এ প্রত্যাবর্তনের অঙ্গীকার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

২৫০ আসন নিয়ে ২০২১-এ প্রত্যাবর্তনের অঙ্গীকার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

লোকসভা নির্বাচনে ৪২ এ ৪২-এর স্লোগান দিয়ে মুখ থুবড়ে পড়তে হয়েছিল, তবুও হাল ছাড়তে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেস যুব সভাপতি ও ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। যতই বিজেপির উত্থান ঘটুক রাজ্যে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস ২৫০ আসন জিতে ফের একবার ক্ষমতায় ফিরবে বলে শহীদ দিবসের মঞ্চ থেকে দাবি করলেন তিনি। আর কি বললেন – দেখে নিন একনজরে

বক্তব্যের প্রথমেই সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন
এই শহীদ দিবসের অনুষ্ঠান হয় – শহীদদের স্মরণে। ১৯৯৩ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে হয়েছিল – নো আইডেন্টিটি, নো ভোট। এবার আবার তাঁর নেতৃত্বে হবে – মেশিন নয়, ব্যালট ফেরাও আন্দোলন।
ইভিএমে ভোট হলে বিজেপির এক রকম ফলাফল হয়, ব্যালটে হলেই মুখ থুবড়ে পরে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিরোধীরা অভিযোগ করে ডায়মন্ড হারবারের নাকি ৪০০ বুথে আমরা এজেন্ট বসতে দিই নি, চ্যালেঞ্জ করছি, যতবার খুশি ভোট করান, প্রতিবার জিতে দেখিয়ে দেব।
বুকের পাটা থাকলে সারা ভারতবর্ষে বিজেপি একবার ব্যালট দিয়ে ভোট করিয়ে দেখুক।

সবাই ভেবেছিল কাটমানি ইস্যুতে তৃণমূল বিদ্ধ।
দিলীপ ঘোষ গতকাল বলেছিলেন, কাটমানির ভয়ে তৃণমূল নেতা কর্মীরা শহীদ দিবসের সভায় আসবেন না।
কিন্তু যতদূর চোখ যায়, শুধুই মানুষের ভিড়।
দিলীপবাবু সাতবার জন্ম নিলেও, এরকম কর্মী পাবেন না। তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরাই তৃণমূলের সম্পদ।

৩৪ বছরের সিপিএমকে হারিয়েছি, আগামীদিনে সিপিএম-বিজেপিকে ঝেঁটিয়ে রাজ্য থেকে বিদায় করব।
কিছুক্ষনের মধ্যেই দলনেত্রী সভাস্থলে আসবেন।
আজান চলছে, তাই বক্তব্য দীর্ঘায়িত করব না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!