এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > নেত্রীর দেখানো পথেই ক্রমশ বড় জননেতা হওয়ার দিকে এগোচ্ছেন তৃনমূলের যুবরাজ

নেত্রীর দেখানো পথেই ক্রমশ বড় জননেতা হওয়ার দিকে এগোচ্ছেন তৃনমূলের যুবরাজ

বর্তমানে দেশে মূল্যবৃদ্ধির জেরে বিরোধীদের কাছে নাকানিচোবানি খেতে হচ্ছে বিজেপি সরকারকে। মোদী বিরোধীতায় দেশে নির্নায়ক শক্তি হিসাবে দেখা যাচ্ছে রাজ্যের শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এবার সেই মোদী বিরোধীতাকে সামনে রেখেই রাজপথে নামল তৃনমূল যুব কংগ্রেস। গতকাল তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই মিছিলে ছিল কার্যত জনজোয়ার। তীব্র দাবদাহকে উপেক্ষা করে কোলকাতার ৮বি বাসস্ট্যান্ড থেকে শুরু হওয়া মিছিল শেষ হয় হাজরা মোড়ে।সেখানে একটি সভার আয়োজন করা হয় তৃনমূল যুব কংগ্রেসের তরফে। এদিনের মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, তৃনমূল নেতা মদন মিত্র, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়, সাধারন সম্পাদক সুব্রত বক্সী সহ তৃনমূলের প্রথম সারির নেতারা। তৃণমূল সূত্রের দাবি কোলকাতার মাটিতে এতবড় মিছিল ইদানীংকালে হয়নি।

সভামঞ্চে পৌছে দলনেত্রীর দেখানো পথেই স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে মাইক ধরেই সাধারন মানুষকে এই মিছিলে উপস্থিত হওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান তৃনমূলের ‘যুবরাজ’ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, কোনও তৃনমূল কর্মীই শুধু তৃনমূল জিন্দাবাদ বলতে মিছিলে আসে না। তারা একটা সিদ্ধান্ত নিয়ে আসে যে মোদী সরকারকে দিল্লীর মসনদ থেকে উৎখাত করতেই হবে। আজকের এই জমায়েত একুশে জুলাইয়ের থেকে কোনো অংশে কম নয়। গতকালের সভা থেকে বিজেপিকে হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, যতদিন এই মূল্যবৃদ্ধি কমবে না, ততদিন রাস্তায় নেমে এইভাবেই প্রতিবাদ করবে তৃনমূল। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একসময় বাংলার সিপিএম সরকারকে পরাস্ত করতে দলীয় মঞ্চ থেকে বামফ্রন্টের ‘মৃত্যুঘন্টা’ বাজিয়েছেলেন। এবার সেই একই পথে হেঁটে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে পরাস্ত করতে প্রতিবাদের অঙ্গ হিসাবে এক বিশাল সিলিন্ডারের রেপ্লিকা দেখিয়ে অভিষেক ব্যানার্জী বলেন, এই সিলিন্ডারের সামনে দাড়িয়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পতনের দিন ঘোষনা করছি।আগামী এক বছরের মধ্যে দিল্লী থেকে বিদায় নেবে বিজেপি সরকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে কেন্দ্রে আসবে নতুন সরকার। মহেশতলায় মহালয়া হয়েছে – ২০১৯-এ দিল্লিতে বিজেপির দশমী হবে।

গতকালের মিছিলেই যে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিবাদ কর্মসূচি শেষ হবে না তার ইঙ্গিতও দেন তৃনমূলের বর্তমানে অঘোষিত দুনম্বর নেতা। দলীয় কর্মীদের জন্য প্রতিবাদ আন্দোলনের রননীতিও ঠিক করে দেন তিনি। আগামী দিনগুলোতে প্রত্যেকটা জেলায় দুপুর দুটো থেকে চারটে অবধি রাস্তায় মিছিল করবে তৃনমূল কংগ্রেস বলে নির্দেশ দেন তিনি। তৃণমূল সূত্রে দাবি, অফিস যাত্রীদের যাতে অসুবিধের সম্মুখীন না হতে হয় তার জন্যেই এই সিদ্ধান্ত। সব মিলিয়ে মোদী বিরোধীতায় গত কয়েকদিন ধরেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের একের পর এক প্রতিবাদ কর্মসূচি এবং তাতে তুমুল জনসমর্থন বেশ চোখ টানছে রাজনৈতিক মহলের। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ধীরে ধীরে দলনেত্রীর দেখানো পথেই ক্রমশ বড় জননেতা হওয়ার দিকে এগোচ্ছেন তৃনমূলের যুবরাজ – অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, যা আগামী দিনে তৃণমূল নেত্রীকে অনেক বেশি নিশ্চিন্তে জাতীয় রাজনীতিতে মনোনিবেশ করতে সাহায্য করবে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!