এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুকুল রায়কে মিথ্যাবাদী বলে আক্রমণ, তারকেশ্বরের গ্রামপঞ্চায়েত নিয়ে মুকুলের দাবিকে নস্যাৎ করলেন অভিষেক

মুকুল রায়কে মিথ্যাবাদী বলে আক্রমণ, তারকেশ্বরের গ্রামপঞ্চায়েত নিয়ে মুকুলের দাবিকে নস্যাৎ করলেন অভিষেক


লোকসভা ভোট শুরু হওয়ার আগে থেকেই একটু একটু করে তিনি তৃণমূলকে ভাঙতে লেগেছেন, একে একে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন অনুপম হাজরা, সৌমিত্র খাঁ, অর্জুন সিং, শঙ্কুদেব পান্ডা, ভারতী ঘোষ প্রমুখ।

আর লোকসভা ভোট মেটার পর তৃণমূলকে ভাঙছেন জলের তোরের মতো। একে একে বহু বিধায়ক, নেতা কর্মী কাউন্সিলর তাঁর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আর গতকাল বিজেপির সদর দপ্তরে সাংবাদিক বৈঠক করে মুকুল রায় দাবি করেছিলেন যে তিনি ফের তৃণমূলের ঘর ভেঙেছেন। জানিয়েছিলেন হুগলির আরামবাগের দুটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিজেদের দখলে নিয়েছে বিজেপি কেননা এই দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরা বিজেপিতে যোগদান করেছেন।

আজ বুধবার কলকাতায় তৃণমূল ভবনে পালটা সাংবাদিক সম্মেলন করে মুকুল রায়ের কালকের দাবিকে ‘সর্বৈব মিথ্যা’ বলে দাবি করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তিনি বলেন তারকেশ্বরের তালপুর আর চাপাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের 17 জন মেম্বার ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করেছেন বলে যে মুকুল রায় দাবি করেছিলেন এই খবরটি সর্বৈব মিথ্যা। তালপুর ও চাঁপাডাঙার ১৫ ও ১২ জন মেম্বার আজকে আমাদের সঙ্গে রয়েছেন এখানে।

তারকেশ্বরের দুটি গ্রাম পঞ্চায়েত এক চাপাডাঙ্গা আরেকটি কাল পুর গ্রাম পঞ্চায়েত এই দুটি গ্রাম পঞ্চায়েতের 17 জন মেম্বার ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করেছেন এই খবরটি সর্বৈব মিথ্যা কাল পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের যে 17 জন মেম্বার রয়েছেন তার মধ্যে 15 জন আজকে আমাদের সঙ্গে রয়েছেন

মিথ্যা খবর পরিবেশন করে নাম্বার বানানোর চেষ্টা করেছে যারা তাদের লজ্জা হওয়া উচিত বেল দাবি করেন। তাছাড়া তিনি বলেন যে, যাদের মাথার উপরে সিবিআইকে ঝুলছে বলে দল ত্যাগ করে অন্যদল গিয়ে এখন যাদের কাজ হচ্ছে নিজের নম্বর বাড়ানো তাদেরকে আমরা সকলেই চিনি জানি এবং তাদের পরিচয় সম্পর্কে বাংলার মানুষকে নতুন করে কিছু বলার দরকার নেই।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এই নিয়ে পাল্টা মুখ খুলেছেন মুকুল রায়। তিনি অভিযোগ করে বলেন যে, রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন কি করছে সভায় জানে। যারা বিজেপিতে আসতে চাইছে বা দল পরিবর্তন করতে চাইছে তাদেরকে মিথ্যা কেসে ফাঁসানো হচ্ছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করানো হচ্ছে। স্বাভাবিক ভাবে দেখানো হয়েছে যে পঞ্চায়েতের সদস্য তৃণমূল ভবনে উপস্থিত আছেন। তবে তারা শারীরিকভাবে সেখানে থাকলেও মানসিকভাবে ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে আছেন এবং ভারতীয় জনতা পার্টির হয়েই তারা কাজ করবেন আগামী দিনে কাজ করবেন।

আর এর পরেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর নাম না নিয়ে তাকে বলেন যে, এস পি আর আইসি টা কে বাদ দিয়ে কাজ করতে বলুন তাহলে অনেক দূর যাবে। ফলে রাজ্যে ফের জমজমাট মুকুল অভিষেক যুদ্ধ। এখন দেখার আগে কি হয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!