এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > এবার বীরভূমের সরকারি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেন না বিধায়ক থেকে সভাপতি, জল্পনা তুঙ্গে

এবার বীরভূমের সরকারি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেন না বিধায়ক থেকে সভাপতি, জল্পনা তুঙ্গে

এখন শাসকদল হলো তৃণমূল কংগ্রেস তাই সরকারি অনুষ্ঠানে তাদের দলের জেলার বিধায়ক থেকে জেলা সভাধিপতির উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু সরকারি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণও জানানো হলোনা খোদ তৃণমূল কংগ্রেসের জনপ্রতিনিধিদের। যে অভিযোগ এতকাল বিরোধীদের ছিল এবার সেই তালিকায় নাম লেখালেন তৃণমূলের হেভিওয়েটরা। জানা যাচ্ছে বীরভূমের রাজনগরে গতকাল থেকে দু’দিনের হুল উৎসব শুরু হয়েছে। সেই অনুষ্ঠানের সূচনা পর্বে উপস্থিত ছিলেন মৎসমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা। তিনিই অনুষ্ঠানের সূচনা করেন।

em>আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

দেখা গেলো আরো অনেক হেভিওয়েট নেতাকে। জানা গেলো পশ্চিমবঙ্গ সরকারের আদিবাসী উন্নয়ন বিভাগের প্রধান সচিব সঞ্জয় থাড়ে-র নেতৃত্বে যে আমন্ত্রণপত্র চাপানো হয়েছে তাতে নাম নেই এলাকারই বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়-এর,পাশের বিধানসভা দুবরাজপুরের নরেশ বাউরি, কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় ও খোদ বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরির। নাম রয়েছে রাজ্য গ্রামীণ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান অনুব্রত মণ্ডল, মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা এবং আউস গ্রামের বিধায়ক অভেদানন্দ থান্ডারের। তবে আশিসবাবু ছাড়া অনুষ্ঠানে সকলেই উপস্থিত ছিলেন। যদিও এই নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ তৃণমূল। এনিয়ে বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায় বলেন যে,কোথাও একটা গন্ডগোল হয়েছে মনে হচ্ছে । তবে অভেদানন্দ থান্ডার যেহেতু আদিবাসী উন্নয়ন বিভাগ কমিটির সদস্য তাই তাঁর নাম রয়েছে। আমাদের বা সভাধিপতির নাম নেই কেন তা বলতে পারব না।কিন্তু সে যাই হোক একটা অন্য রকম জল্পনা তো উঠছেই রাজনৈতিকমহলে। তবে কি এবার দলে ব্রাত্য হচ্ছেন বিকাশ রায় চৌধুরি।

Top
Close
error: Content is protected !!