এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আক্রমণের জবাব দিয়ে মুকুলকে পাল্টা চাপে ফেললেন পার্থ

আক্রমণের জবাব দিয়ে মুকুলকে পাল্টা চাপে ফেললেন পার্থ

মুকুল রায়ের আক্রমনের জবাব দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।এদিন তিনি স্পষ্ট জানান যে বিজেপি নেতাদের কথাকে গুরুত্ত্ব দিচ্ছেন না। তিনি মুকুল রায়কে নাম না কর এলেবেলে বিজেপি নেতাও বলেন। পাশাপাশি পাল্টা চাপ ও তৈরী করে দিলেন তিনি। পাশাপাশি পাল্টা চাপ ও তৈরী করে দিলেন বলেও মনে করছে রাজনৈতিকমহল। কেননা বরাবরই তৃণমূল অভিযোগ করছে যে তৃণমূলকে ফাঁসাতে বিজেপি তৃণমূল নেতাদের ইডি ও সিআইডির ভয় দেখাচ্ছে ও ফাঁসাচ্ছে। এবার যদি মুকুল রায়ের বক্তব্যের পর আবার কোনো তৃণমূল নেতা ইডি ও সিআইডির ডাক পায় তবে তৃণমূল আবার ষড়যন্ত্র করছে বিজেপি এই বলে অভিযোগ করবে ।এই কথাই এদিন বললেন পার্থবাবু । তিনি এদিন বলেন, ” বিজেপির এই সমস্ত এলেবেলে নেতাদের উত্তর দেওয়া মানে শক্তিক্ষয় করা। প্রশ্ন হল সিবিআই বা ইডি ডাকবে তা বিজেপি নেতারা আগাম জানতে পারছেন কী করে ? দ্বিতীয়ত, যদি সত্যি কাউকে এরপর ডাকা হয় তাহলে প্রমাণিত হয়ে যাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই ঠিক। অর্থাৎ সিবিআই বা ইডি বিজেপির কথাতেই চলে। এবং তৃতীয়ত, যদি এমন অভিযোগ থেকে থাকে তাহলে এতদিন ধরে কেন ডাকা হয়নি ? আসলে এসব হাফ নেতাদের কথার কোনও গুরুত্বই নেই। আমি এসব আজেবাজে কথার কোনও জবাব দিই না।”প্রসঙ্গত ঘাটালের বিজেপির একটি সভা থেকে তৃণমূল নেতা ও রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আক্রমন করে বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায় এদিন বলেছিলেন , ” চিটফান্ডের সঙ্গে সংশ্রব রেখে মদনকে জেলে যেতে হয়েছিল। প্রয়াগের মালিককে পাশে নিয়ে মঞ্চে দাঁড়িয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন এই সংস্থাকে সাহায্য করার জন্য। সেই একই দোষে রাজ্যের বর্তমান শিক্ষামন্ত্রীকে কেন ডাকবে না সিবিআই বা ইডি। তবে এটুকু বলতে পারি সেদিন খুব দ্রুত আসছে, যেদিন লাইন দিয়ে তৃণমূলের নেতা-নেত্রীদের সিবিআই আর ইডির কাছ যেতে হবে।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!